কুতুবদিয়া কমিউনিটি পুলিশিং ডে পালিত

প্রকাশ:| শনিবার, ২৮ অক্টোবর , ২০১৭ সময় ১১:৫৭ অপরাহ্ণ

লিটন কুতুবী
কুতুবদিয়া-কক্সবাজার:
মরণনেশা ইয়াবা, মাদক,বাল্যবিবাহ,সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ, চুরি-ডাকাতি নির্মূলে পুলিশের পাশাপাশি সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করবে কমিউনিটি পুিলশ। তাই অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুিলশিংয়ের সাংগঠনিক ভীতকে গতিশীল করতে হবে। সারা দেশের ন্যায় গতকাল শনিবার কুতুবদিয়ায় র্বনাঢ্য আয়োজনে কমিউনিটি পুিলশিং‘ডে’র অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কুতুবদিয়া-মহেশখালীর সাংসদ আলহাজ আশেক উল্লাহ রফিক অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন। সকাল ১০টায় আনুষ্টানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন শেষে তার নেতৃত্বে ব্যান্ডের তালে তালে উপজেলার প্রধান প্রধান সড়কে এক বিশাল র‌্যালী প্রদক্ষিণ করে। পরে উপজেলা কমিউনিটি পুলিশের সভাপতি রেজাউল করিমের সভাপতিত্বে কুতুবদিয়া থানা কম্পাউন্ডে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন থানা অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) মোঃ দিদারুল ফেরদৌস, কক্সবাজার জেলা পরিষদের সদস্য মাস্টার আহমদ উল্লাহ, উপজলো আ.লীগের সভাপতি আওরঙ্গজেব মাতবর, জেলা আ.লীগের সমবায় বিষয়ক সম্পাদক খোরশেদ আলম কুতুবী, অধ্যাপক প্রিয়তুষ র্শমা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা আ.লীগের সভাপতি ছৈয়দা মেহেরুন্নেছা ও উপজেলা আ.লীগ নেতা হাজী মুহাম্মদ তাহের। কমিউনিটি পুলিশের সদস্য মাস্টার আবু ইউছুেপর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন কুতুবদিয়া কলেজের অধ্যক্ষ নুরুচ্ছাফা, মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ নুরুল আলম সিকদার, উপজলো কমিউনিটি পুিলশের সাধারণ সম্পাদক মন্জুর আলম, সদস্য সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা আ.লীগ নেতা কায়মুল ইসলাম আছাদ উল্লাহ চৌধূরী, কুতুবদিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি খোরশেদ আলম সম্পাদক মিজবাহ রহমান তুহিন। ইয়াবা ও মাদকদ্রব্য ব্যবসায়ী যতই শক্তিধর নেতা-কর্মী জড়িত হোক তিনি কাউকে ছাড় দেবে না বলে ঘোষণা দেন থানার অফিসার ইনর্চাজ। এ কাজে কমিউনিটি পুিলশসহ সংশ্লিষ্ট সকলের র্সবাত্ত্বক সহযোগীতা চান তিনি। সভায় অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন কুতুবদিয়া উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি লিটন কুতুবী, সিনিয়র সাংবাদিক হাছান কুতুবী , এম.এ.মান্নান,প্রভাষক এম, নজরুল ইসলাম, ইফতেখার সাহাজীদ রোকন,অধ্যাপক আওরঙ্গজের সিকদার, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক সেলিম উদ্দিন লিটন, আরিফুল ইসলাম, কমিউনিটি পুলিশের সদস্য নাজিম উদ্দিন লালাসহ আ.লীগ,যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কমিউনিটি পুিলশের বহু নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান শেষে হিন্দু সম্প্রদায় ও কৈয়ারবিল বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদের অনুষ্ঠান শেষে কুতুবদিয়া ত্যাগ করেন।


আরোও সংবাদ