কুতুবদিয়ায় নাশকতার অভিযোগে আটক-৭

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারি , ২০১৮ সময় ০৮:০০ অপরাহ্ণ

লিটন কুতুবী,কুতুবদিয়া:
কক্সবাজারের কুতুবদিয়ার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে নাশকতার অভিযোগে জামায়েতর ৭ নেতা কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। কুতুবদিয়া থানা সূত্রে জানানো হয়েছে এ খবর নিশ্চিত করেন। ২ ফেব্রুয়ারী (শুক্রবার)সন্ধ্যা থেকে ৩ ফেব্রুয়ারী (শনিবার) সকাল পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন দক্ষিণ ধুরুং ইউনিয়নের ডাঃ শাহাদাত হোসেনের পুত্র জামায়েত নেতা ডাঃ সাঈদুল মনির (৩৬), একই ইউনিয়নের নুরার পাড়ার নুর আহম্মদের ছেলে শফিউল আলম নূরী (৪৫),নয়া পাড়ার ছাবের আহমদের ছেলে রবিউল হোসেন (২৮) সিকদার পাড়ার আশরাফ আলীর ছেলে শাহাদাত কবির (৩৮),উত্তর ধুরুং ইউনিয়নের আবুল হোসেনের পুত্র জামায়েত নেতা আবদুর রহমান (২৮), বড়ঘোপ ইউনিয়নের উত্তর মগডেইল গ্রামের শামসুল আলমের পুত্র জামায়েত বড়ঘোপ ইউনিয়নের সভাপতি বড়ঘোপ ইসলামীয়া ফাযিল ডিগ্রী মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ ওয়াক্কাস প্রকাশ আক্কাস (৩৭),লেমশীখালী ইউনিয়নের মোঃ ইদ্রিছের ছেলে সাইদুল হক সাঈদ (২২)।
পুলিশ সূত্রে প্রকাশ, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ ধুরুং শুকলাল পাড়া জামে মসজিদ ও ফোরকানিয়া মাদ্রাসায় জামায়েত-শিবির ও বিএনপির ৫০ থেকে ৮০ জন নেতাকর্মী জড়ো হয়ে নাশকতার পরিকল্পনা করার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার পথে আটক জামায়াত নেতাকর্মীরা সরকার বিরোধী শ্লোগান দিয়ে গাড়ি ভাংচুর করার জন্য আজম সড়কে মিছিল করছিল। তৎক্ষনিক পুলিশ অভিযান চালিয়ে জামায়েত নেতাদের আটক করে।
এজাহারে আরো উল্লেখ করে যে, আগামী ৮ ফেব্রুয়ারী বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার একটি মামলার রায়ের দিন ধার্য্য আছে। এ সুবাধে জামায়াত বিএনপির নেতা কর্মীরা নাশকতার করার পরিকল্পনা করছিল। আটকৃতদের মধ্যে অনেকেই উপজেলা পরিষদ ভবন,আদালত ভবন,সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তর ভাংচুর মামলার অন্যতম আসামী।
কুতুবদিয়া থানার সহকারী পরির্দশক (এসআই) আতিক উল্ল্যাহ গত ২ ফেব্রুয়ারী বাদী হয়ে কুতুবদিয়া থানায় ১৯৭৪ সনের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫ (৩),২৫(ডি) ধারায় মামালা রুজু করেন। গতকাল শনিবার দুপুরে ধৃত আসামীদের কুতুবদিয়া জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রেজাউল হকের আদালতে হাজির করা হলে আদালত জামিন না মঞ্জুর করে তাদেরকে জেল হাজতে প্রেরন করার কথা নিশ্চিত করেন কুতুবদিয়া থানার ওসি মোহাম্মদ দিদারুল ফেরদাউস।


আরোও সংবাদ