কুতুবদিয়ায় অজ্ঞান পার্টির ফাঁদ!

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| বুধবার, ১৪ মার্চ , ২০১৮ সময় ০৭:০০ অপরাহ্ণ

বন্ধু হয়ে বেড়াতে এসে,স্বর্ণালংকারসহ নগদ অর্থ নিয়ে চম্পট!

কর্মসূত্রে ঢাকায় চলতে পথে দেখা বন্ধু মিজবাহ’র সাথে রিপনের। পরিচয় সূত্রে কথা হয় দুইজনের মধ্যে। রিপন সরলবিশ্বাসে নিজের সঠিক পরিচয় প্রদান করলেও সব তথ্য গোপন রাখে মিজবাহ। মিজবাহ নিজেকে ভোলা জেলার বাসিন্দা পরিচয় দিয়ে রিপনের সাথে বন্ধুত্ব চালিয়ে যেতে থাকে ধীরে ধীরে। এক পর্যায়ে রিপনের সাথে গভীর বন্ধুত্বের সম্পর্ক তৈরী করে রিপনের গ্রামের বাড়ি কক্সবাজার জেলার কুতুবদিয়া উপজেলার আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নের চৌধুরী পাড়ায় বেড়াতে আসে। আর সেই রাতেই পরিবারের সবাইকে ফ্রুটু জুস খাইয়ে অজ্ঞান করে ৮ভরি স্বর্ণালংকার, ২টি দামী মোবাইল সেট ও নগদ অর্থসহ প্রায় পাঁচ লাখ টাকার মালামাল হাতিয়ে নিয়ে ভোর না হতেই চম্পট দেয় বন্ধু মিজবাহ। এ চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে গত ৮মার্চ (বৃহস্পতিবার) দিবাগত রাতে উপজেলার আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নের চৌধুরী পাড়া গ্রামের নুর সোলতানের বাড়িতে। এব্যাপারে এলাকার এমইউপি দিদারুল ইসলাম (বাচ্চু)’র সাথে কথা হলে তিনি বলেন, প্রতারক ছেলেটির ব্যবহৃত ০১৮৩৯৭৫৪৫০৩,০১৮৫৬-৮৫৭৯৮৬,০১৮১১১৭৮৩০৬ ও ০১৭৪১০০৩১০ নাম্বারগুলো সংগ্রহ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে বাড়ির মালিক নুর সোলতান জানান, গত ৮ মার্চ (বৃহষ্পতিবার) আমার মেয়ে গহনাপাতি দিয়ে তার শশুর বাড়ি পেকুয়া থেকে বেড়াতে এসেছিল কুতুবদিয়া। তার আগের রাতে আমার মেয়ে জামাই আরিফুল ইসলামের সাথে পেকুয়া বাজারে দেখা হয়েছিল ওই ছেলের। তাকে আপ্পায়নও করেছে আমার মেয়ে জামাই। পরের দিন ওই ছেলে আমার বাড়িতে এসে আমাদের সবাইকে বোকা বানিয়ে ধোঁকা দিবে তা কখনো ভাবিনি। ছেলের বন্ধু হিসেবে আমরা কেউ প্রতারক এ ছেলেকে অবিশ্বাস করিনি। সরল মনে ভাল ছেলে ভেবে বিশ্বাস করেছিলাম। কিন্তু এ প্রতারক বন্ধু আমাদের সবাইকে ধোঁকা দিয়ে জুস খাওয়াইয়া নগদ অর্থসহ প্রায় ৫ লাখ টাকার মূলবান মালামাল নিয়ে চম্পট দিয়েছে। তিনি আরো বলেন, আমার চোখের সামনে সব কিছু নিতে দেখেও আমি কিছু করতে পারিনি। এসময় আমার শরীরের কোন ধরনের শক্তি ছিল না। পরিবারের অন্যান্য সদস্যরাও বলেছেন একই কথা।