‘কুখ্যাত এমপি লতিফকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান‘

প্রকাশ:| সোমবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি , ২০১৬ সময় ১০:০০ অপরাহ্ণ

আওয়ামী লীগ থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য এম এ লতিফকে চট্টগ্রামের কুলাঙ্গার আখ্যা দিয়ে তাকে রাজনীতি থেকে বিতাড়িত করার আহ্বান এসেছে চট্টগ্রামে আয়োজিত এক যুব সমাবেশে।

69586সোমবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে নগরীর লালদিঘি ময়দানে আয়োজিত যুব সমাবেশে দেয়া বক্তব্যে এমন আহ্বান জানান নগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ও নাগরিক মঞ্চের আহ্বায়ক একেএম বেলায়েত হোসেন।
‘কুখ্যাত এমপি লতিফ বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি বিকৃতির জন্য ক্ষমা না চেয়ে উল্টো সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর বিরুদ্ধে থানায় জিডি করার মত ঔদ্ধর্ত্যপূর্ণ আচরণ করেছে। লতিফ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের কল্যাণে এমপি নির্বাচিত হয়েছেন।

এদিকে সংসদ সদস্য লতিফের দেশপ্রেম, দলের প্রতি আনুগত্য এবং সংবিধানের প্রতি দায়বদ্ধতা নেই বলে অভিযোগ করেছেন একই দলের চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির সহ-সভাপতি নঈম উদ্দিন চৌধুরী।

লতিফকে হাইব্রিড আওয়ামী লীগ নেতা উল্লেখ করে নঈম উদ্দিন বলেন, আমি আমার মেয়ের ফেসবুক স্ট্যাটাসে লতিফের বানানো বঙ্গবন্ধুর বিকৃত ছবি দেখেছি। আমি অবাক হয়ে গেছি। আমার মাথা নত হয়ে গেছে। এমন লোককে আমরা এমপি বানিয়েছি। লতিফের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের গণমানুষের নেতা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী যে সামাজিক আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন তার প্রতি আমরা পূর্ণ সমর্থন জানাচ্ছি।

নগর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকার সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম আহ্বায়ক মাহবুবুল হক সুমনের সঞ্চালনায় এতে আরও বক্তব্য রাখেন নগর যুবলীগের সদস্য অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন আজাদ, আকবর হোসেন, মাহবুব আলম আজাদ, সাখাওয়াত হোসেন স্বপন, রেজাউল করিম কাইসার, আবু সাঈদ জন, হেলাল উদ্দিন, এস এম সাঈদ সুমন, নুরুল আনোয়ার,

গত ৩০ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফরকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রাম-১১ আসনের (বন্দর, হালিশহর ও পতেঙ্গা) সাংসদ এম এ লতিফ বন্দরনগরীর বিভিন্ন স্থানে ফেস্টুন লাগিয়ে দেন। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতির মুখমণ্ডলের সঙ্গে লতিফের নিজের শরীর জুড়ে দিয়ে তৈরি করা হয় ফেস্টুনগুলো।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে লতিফ সংবাদ সম্মেলন করে বঙ্গবন্ধুর ছবি বিকৃতির কথা স্বীকার করলেও দায় চাপিয়েছেন ডিজাইনারের উপর।