কি ধরনের পোশাক পরলে আরাম লাগবে?

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শুক্রবার, ৪ মে , ২০১৮ সময় ০৯:০৬ অপরাহ্ণ

গ্রীষ্মকালীন পোশাক নিয়ে আমরা নানা ধরনের বিপদে পড়ে থাকি। কি ধরনের পোশাক পরবো? কি ধরনের পোশাক পরলে আরাম লাগবে? এ নিয়ে চিন্তাভাবনা চলতেই থাকে।

ঋতুর সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে আমরা আমাদের পোশাক নির্বাচন করি। এটা ছেলে এবং মেয়ে উভয়ই করে থাকি। আমরা সব সময় চাই যে ঋতুই হোক না কেন সেটা যেন আরামদায়ক হয়। এবং ফ্যাশনেবলও।

আরামদায়ক পোশাকের খোঁজে আমরা ফ্যাশন হাউজে যাই। কিংবা কাপড় কিনে দর্জি দোকান থেকে পছন্দ মাফিক পোশাক তৈরি করি।

আসলে বিভিন্ন ঋতুতে সুন্দর পোশাকের মাধ্যমে নিজেকে কীভাবে সুন্দরভাবে উপস্থাপন যায়, এই সিদ্ধান্ত নেয়া অল্পবয়সী ছেলেমেয়েদের জন্য একটু কষ্টকর। তবে সিদ্ধান্ত নেওয়ার প্রথম শর্ত হল, আপনাকে অবশ্যই আর্টিফিসিয়াল পোশাক এড়িয়ে চলতে হবে। কারণ, বিভিন্ন ঋতুতে বিভিন্ন পোশাক বিভিন্ন সৌন্দর্য সৃষ্টি করে এবং আরামদায়ক হয়।

আরামদায়ক পোশাক কোনটা?

গ্রীষ্মে নিজেকে আরামদায়ক রাখার প্রধান শর্ত হল হাতা কাটা পোশাক পরা। যা গরম থেকে অনেক প্রশান্তি দেয়। মেয়েরা যে সকল রঙের পোশাক পরে তার মধ্য– সাদা, হালকা গোলাপী, হালকা বেগুনি, হালকা নীল, বাদামী, আকাশী নীল, হালকা হলুদ ইত্যাদি রঙের পোশাককে অগ্রাধিকার দেওয়া উচিত। কারণ, সাদা বা হালকা যে কোন রঙের পোশাক তাপ বিকিরণ করে। ফলে পোশাকটি আরামদায়ক হয়।

পুরুষ এবং শিশুদের পোশাকও হালকা রঙের হওয়া উচিৎ। যেমন- সাদা, ধূসর, হালকা নীল, বাদামী, উজ্জ্বল বাদামী ইত্যাদি রঙের পোশাক।

গরমকালে হালকা রঙের যেকোন পোশাক ভাল। এ সময় আপনি বেছে নিতে পারেন সাদা, হালকা গোলাপী ও নীল রঙের পোশাক।

ঢিলেঢালা পোশাক

যে পোশাক আপনার দেহের সঙ্গে লেগে থাকে না, সেগুলো গরমে ত্বকে স্বস্তি জোগায়। তাই গ্রীষ্মকালে পোশাক কেনার সময় তা যেন যথেষ্ট ঢিলেঢালা হয় সেদিকে খেয়াল রাখুন। স্কিন টাইট পোশাকের তুলনায় এগুলো যথেষ্ট স্বাস্থ্যকর।

প্রাকৃতিক ফেব্রিক

গ্রীষ্মকালে পরেস্টার বা এজাতীয় কৃত্রিম তন্তু থেকে তৈরি পোশাকের বদলে পরুন প্রাকৃতিক ফ্রেবিকের তৈরি পোশাক। এ ধরনের পোশাক আপনার দেহের ঘাম দূর করবে এবং দেহকে ঠাণ্ডা রাখবে।

হালকা পোশাক

ভারী পোশাক আপনার পোশাকের ওজন বাড়াবে। এ ছাড়া বাড়তি পোশাকের কারণে আপনার দেহের সঙ্গে কাপড় আটোসাঁটো হয়ে থাকবে। এতে বাতাস চলাচল কমে যাবে এবং আপনার দেহের তাপমাত্রা বাড়বে। ফলে গরমে আপনার ঘাম হবে এবং নানা ধরনের সমস্যা তৈরি হবে। তাই গ্রীষ্মে হালকা পোশাক পরাই সবচেয়ে ভালো।

হালকা রঙ

টেস্ট ক্রিকেটে সাদা পোশাক পরে থাকে খেলোয়াড়রা। কারণ গাঢ় রং তাপমাত্রা শোষণ করে এবং দেহের তাপমাত্রা বাড়ায়। অন্যদিকে হালকা রঙ তাপ বিকিরণ করে। তাই গরমে সাদা বা এ ধরনের হালকা রঙের পোশাক পরুন।

কটন ও ডেনিম

গরমে কটন ও ডেনিমের মতো সুতি কাপড়ের পোশাক পরা যেতে পারে। তবে খেয়াল রাখতে হবে, এগুলো যেন টাইট ফিটিং না হয়। এ ছাড়া টি-শার্টও একটি আরামদায়ক বিকল্প।

বায়ু চলাচল

কিছু পোশাক রয়েছে যেগুলোর ভেতর দিয়ে বায়ু একেবারেই চলাচল করতে পারে না। এগুলো অনেকটা বায়ুরোধকের মতই দেহের ভেতর বায়ু আটকে দেয়। ফলে শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যায়। তাই গরমকালে এ ধরনের পোশাক না পরাই ভালো। পোশাকই আমাদের সুন্দরকে দ্বিগুণ করে।

সুতরাং কোন সময় কোন রঙের পোশাক পরতে হবে সেটা বেছে নেওয়া সৌন্দর্যের জন্য অনেকটা গুরুত্বপূর্ণ।