টেকনাফের গ্রীন গার্ডেনে এসব কি হচ্ছে?

প্রকাশ:| বুধবার, ৪ জানুয়ারি , ২০১৭ সময় ১০:৪২ অপরাহ্ণ

শামসু উদ্দীন, টেকনাফ
টেকনাফের কয়েকটি আবাসিক হোটেলে চলছে অসামাজিক কার্যকলাপ ও জুয়া খেলা। হোটেল ভাড়ার নামে ১/২ ঘন্টার জন্য মোটা অংকের টাকায় কক্ষ ভাড়া নিয়ে তরুন-তরুনী ও ক্ষেত্র বিশেষে বয়স্করাও অসামাজিক কার্যক্রমে জড়িয়ে পড়ছে। পাশাপাশি এক শ্রেণীর নব্য লাখপতি যুবকরা জুয়া খেলায় মেতেছে। বিশেষ করে টেকনাফ পৌরসভার গ্রীন গার্ডেন হোটেলে চলছে বেশীর ভাগ ওইসব কার্যকলাপ। উপজেলা ও থানা প্রশাসন কয়েকবার অভিযান চালিয়ে খদ্দেরসহ পতিতা আটক করে জেল হাজতে প্রেরন করলেও থামছেনা অসামাজিক কার্যকলাপ।
বর্তমানে পর্যটন মৌসুম থাকায় অনেক পর্যটক গ্রীন গার্ডেন হোটেলে রাত্রি যাপন করে থাকে। এসুযোগকে কাজে লাগিয়ে এক শ্রেনীর দালাল চক্র গড়ে তুলে বেশ কয়েকটি দেহ ব্যবসায় নিয়োজিত দালাল সিন্ডিকেট। খদ্দেরদের সাথে যোগাযোগ করে কক্ষ ভাড়া নেয়া, খদ্দের ম্যানেজ করে দেয়া, নিরাপত্তার জন্য হোটেলের চর্তুরপাশে লোক ম্যানেজ রাখা সহ যাবতীয় কাজ করে থাকে ওই সিন্ডিকেট।
এতে করে এলাকার উঠতি যুব সমাজ দিন দিন চরিত্রহীনতা ও ধ্বংসের পথে ধাবিত হচ্ছে। এসব অবৈধ কার্যকলাপ থেকে বিরত রাখার জন্য প্রশাসনিক হস্থক্ষেপ কামনা করেন সচেতন মহল।
উল্লেখ্য যে, হোটেল মালিক মমতাজ আহমদসহ ১১জন পতিতা-খদ্দেরকে তৎকালীন ওসি আতাউর রহমান খান আটক করেছিল।
এব্যাপারে হোটেল মালিক মমতাজ আহমদের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি প্রশ্ন শুনে কোন উত্তর না দিয়ে মোবাইল সংযোগ কেটে দেন।
এব্যাপারে টেকনাফ মডেল থানার ওসি তদন্ত শেখ আশরাফুজ্জামান জানান, সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে আবাসিক হোটেলের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।