কিশোর রিপন অপহরণ : লাবলু সর্দ্দারের স্বীকারোক্তি

প্রকাশ:| সোমবার, ২৮ নভেম্বর , ২০১৬ সময় ০৮:৫০ অপরাহ্ণ

%e0%a6%95%e0%a6%bf%e0%a6%b6%e0%a7%8b%e0%a6%b0-%e0%a6%b0%e0%a6%bf%e0%a6%aa%e0%a6%a8বোয়ালখালী প্রতিনিধি: বোয়ালখালীতে কাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়া কিশোর রিপনের খোঁজ মেলেনি। এ ঘটনায় আটককৃত দুই অপহরণকারীর মধ্যে ধৃত দুইজনের মধ্যে লাবলু সর্দ্দার চট্টগ্রামের আদালত-১ এর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হোসেন মোহাম্মদ রেজাউলের আদালতে রবিবার সন্ধ্যায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে বলে জানিয়েছে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বোয়ালখালী থানার উপ-পরিদর্শক মোহাম্মদ খলিলুর রহমান।
তিনি বলেন, জবানবন্দিতে লাবলু ২১ নভেম্বর অলিবেকারী সর্দ্দার পাড়ার মগদেশ্বরী মন্দিরের পুকুর পাড় থেকে সন্ধ্যায় রিপনকে অপহরণ করে ৬জনে মিলে উপজেলার জঙ্গল আমুচিয়ার পাহাড়ী উপত্যকায় আটকে রাখে বলে স্খীকারোক্তি দেয়। এছাড়া আমুচিয়ার গুচ্ছ গ্রামের পাহাড়ী এলাকার জনৈক শাহীনের খামার বাড়ীর একটি চৌচালা টিনের ঘরে রাতের বেলা এবং পাহাড়ী জঙ্গলে দিনের বেলা ২৬নভেম্বর পর্যন্ত আটকে রাখে বলে আদালতকে জানায় লাবলু। জবানবন্ধি শেষে লাবলু সর্দ্দার (৩৩) ও রঞ্জন সর্দ্দার (২৫)কে জেল হাজতে নেয়া নির্দেশ দেয় আদালত।
গতকাল রবিবার রিপন অপহরণকারী উপজেলার কানুনগোপাড়ার উত্তর সর্দ্দারপাড়ার নেপাল সর্দ্দারের ছেলে লাবলু সর্দ্দার (৩৩) ও চিন্তা সর্দ্দারের ছেলে রঞ্জন সর্দ্দার (২৫)কে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করে পুলিশ। সন্ধ্যায় তাদের আদালতে হাজির করা হলে লাবলু সর্দ্দার ১৬৪ধারায় অপহরণের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।
বোয়ালখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সালাহ্ উদ্দিন চৌধুরী জানান, ধৃত আসামীদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী অভিযান চলছে। রিপনকে উদ্ধারে পুলিশি তৎপরতা আরো জোরদার করা হয়েছে।
উল্লেখ্য গত ২১ নভেম্বর কিশোর রিপন নিখোঁজ হলে এর ৩দিন পর রিপনের মা চন্দনা দাস বোয়ালখালী থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন।