কিছু সমস্যার সহজ সমাধান

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ১৬ আগস্ট , ২০১৮ সময় ০৮:৫৭ পূর্বাহ্ণ

অস্থির লাগছে? কান্না পাচ্ছে খুব?
টেনশনে ভুগছেন?
.
নিরিবিলি একটা রুমে বসে জিকির করুন,
বা কোরআন
তিলাওয়াত করুন, দেখবেন অন্তরে
প্রশান্তি
আসবে ইন-শা-আল্লাহ্ । .
অনেক পাপ করে ফেলেছেন? এখন অপরাধ
বোধে অস্থির লাগছে? কষ্ট হচ্ছে খুব? .
তবে জেনে রাখুন ইসলামের দরজা
আপনার জন্য
সবসময় খোলা আছে। তওবা করুন মন
থেকে।
পুনরায় পাপ করে থেকে বিরত থাকুন।
আল্লাহ্ তো
বলেই দিয়েছেন, “তিনি ক্ষমাশীল ও পরম
দয়ালু।”
সবাই আপনাকে ছেড়ে চলে গেলেও
আল্লাহ্
ছেড়ে যাবেন না। তিনি সবসময় তাঁর
বান্দার সাথে
আছেন।
.
ভবিষ্যত নিয়ে চিন্তিত? চাকরি পাবেন
কি পাবেন
না;পরীক্ষা ভাল হবে কিনা?
.
তাকদীরে বিশ্বাস করুন আর চেষ্টা
চালিয়ে যান।
আল্লাহর উপর ভরসা করুন। তিনি তো
বলেই
দিয়েছেন, “যারা আল্লাহর উপর ভরসা
করে তাদের
জন্য আল্লাহই যথেষ্ট” তাহলে চিন্তা
কিসের? .
জীবন এলোমেলো হয়ে গিয়েছে? ঠিক
করতে পারছেন না কিছুতেই?
.
মহানবী (সঃ) এর আদর্শ অনুসরণ করার
চেষ্টা করুন।
ঘুম থেকে ওঠা থেকে শুরু করে ঘুমাতে
যাওয়া
পর্যন্ত তাঁর সুন্নাহ্ অনুসরণ করুন। জীবন
সবচেয়ে
সুন্দর হবে ইন-শা-আল্লাহ্ । .
পরিবারে অশান্তি? মা-বাবা, ভাই-
বোনের মধ্যে
ভালবাসার অভাব?
.
সবাইকে সালাম দিন, মা বাবা ভাই
বোনকেও এবং
তাদের নিজ মুখে বলুন “আমি আল্লাহর
জন্য
তোমাকে ভালবাসি” কেন বলবেন? কারণ
মহানবী
(সঃ) ইরশাদ করেছেন, “তোমরা
জান্নাতে প্রবেশ
করতে পারবেনা, যে পর্যন্ত না তোমরা
ঈমানদার
হবে। আর তোমরা ঈমানদার হতে
পারবেনা যে
পর্যন্ত না তোমরা পরষ্পরকে ভালবাসবে,
আমি কি
তোমাদের এমন এক বস্তু শিখিয়ে দিবনা
যা বাস্তবায়ন
করলে তোমরা পরষ্পর পরষ্পরকে পছন্দ
করবে? (সেটি হল) তোমরা নিজেদের
মাঝে
সালামের প্রসার সাধন কর, অর্থাত্
অধিক পরিমাণে
সালামের আদান প্রদান কর।”
( সহীহ মুসলিম: ১-৭৪)
.
আর নিজ মুখে ভালবাসি বলার কথাও
হাদীসে
এসেছে। তাহলে ভালবাসা বৃদ্ধির এই দুটি
জিনিস জানা
থাকলে কিসের এত চিন্তা?
.
হতাশ হয়ে পড়েছেন? কোন আশাই খুজে
পাচ্ছেন না জীবনে?
.
দেখুন তাহলে পবিত্র কোরআনে আল্লাহ্
কি
বলেছেন,
” আল্লাহর রহমত থেকে নিরাশ হয়োনা।
নিশ্চয়ই
আল্লাহর রহমত থেকে কাফের সম্প্রদায়
ব্যতীত
অন্য কেউ নিরাশ হয়না।” ( সুরা ইউসুফ,৮৭)
.
নিজের উপর অনেক চাপ মনে হচ্ছে?
সামলাতে
পারবেন না মনে হচ্ছে? তবে দেখুন
আল্লাহ্ কি
বলেছেন, ” আল্লাহ্ কাউকে তার
সাধ্যাতীত
কোন কাজের ভার দেন না।”
( সূরা বাক্বারাহ: ২৮৬)।
.
আপনার ক্ষমতা আছে, আপনি পারবেন ইন-
শা-আল্লাহ্।
সাধ্য আছে বলেই আল্লাহ্ আপনাকে
কাজ
দিয়েছেন।আল্লাহর উপর ভরসা করুন।
বোঝা মনে
না করে আত্মবিশ্বাসের সাথে কাজ
করুন। সবকিছু
হালকা লাগবে ইন-শা-আল্লাহ্।। আল্লাহ্
আমাদের
মেনে চলার তৌফিক দান করুন। আমিন।।