কিছু ভুল ধারণা আর সমালোচনার উত্তর দিলেন বাপ্পারাজ

প্রকাশ:| শনিবার, ২৬ আগস্ট , ২০১৭ সময় ০৫:৫৩ অপরাহ্ণ

 

সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাতেই হাজির হয়েছিলেন বাপ্পারাজ। নায়করাজ রাজ্জাকের বড় ছেলে। দায়িত্বটা তাঁরই বেশি। এফডিসি আজ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিবার আয়োজিত স্মরণসভায় বাপ্পারাজ কথা বলতে গিয়ে বেশ কবারই বাষ্পরুদ্ধ হলেন। আবেগে কাঁদলেন। কখনো কখনো আবেগের সঙ্গে মিশে থাকল ক্ষোভও।
নিজেও একসময় বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় নায়কদের একজন ছিলেন। সন্তান হিসেবে বাবা সম্পর্কে কিছু ভুল ধারণা আর সমালোচনার উত্তর দিলেন বাপ্পারাজ। বললেন, উত্তরায় রাজলক্ষ্মী কমপ্লেক্স নিয়ে প্রচলিত ভুল ধারণার কথা, ‘‌একটা ভুল ধারণা আছে যে, উনি সিনেমা হলের নাম করে মার্কেট করেছেন। অনুমতিটা সিনেমা হলের নাম করে নিয়েছেন। না, মার্কেটের কথা বলেই অনুমতি নেওয়া। মার্কেটটা ওখানে মার্কেট হিসেবেই তৈরি করা হয়েছিল। পরে আমরা সিনেমা হল করার চেষ্টা করেছিলাম, রাজউক থেকে অনুমতি দেওয়া হয়নি।’
স্মরণসভায় প্রয়াত অভিনেতা রাজ্জাকের ছেলে ও অভিনেতা বাপ্পারাজ। ছবি: প্রথম আলোএ ক্ষেত্রে মার্কেটটির নকশাও একটা বাধা ছিল বলে জানালেন বাপ্পারাজ, ‘ওই ভবনটায় অনেক পিলার ছিল। সেটা ভেঙে জায়গা বের করে সিনেমা হল করার কোনো উপায় ছিল না। করা হয়নি। পরে ওপরে সিনেমা হল করার চেষ্টা করেছিলাম, তখনো অনুমতি দেওয়া হয়নি। কিছুদিন আগেও ওখানে বিসিকের একটা অডিটোরিয়াম ছিল, ওটাও আমরা নেওয়ার চেষ্টা করেছিলাম সিনেমা হল করার জন্য। উত্তরার একটি স্কুলের পাশে হওয়া সেটাও করা যায়নি। এই হলো ঘটনা।’
বাপ্পারাজ বলেন, ‘এটা নিয়ে অনেকেরই ভুল ধারণা আছে, আমি পরিষ্কার করে দিলাম। রাজ্জাক সাহেব দুই নম্বরি করে মার্কেট বানাননি, রাজ্জাক সাহেব সৎ থেকে মার্কেট বানিয়েছেন। রাজ্জাক সাহেব যদি দুই নম্বরি করে বানাতেন, তাহলে উত্তরায় আরও চার-পাঁচটা মার্কেট থাকত। করেননি।’
নায়করাজ রাজ্জাক স্মরণে আজ শনিবার রাজধানীর বিএফডিসিতে শোকসভার আয়োজন করে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিবার। সভায় বাবা সম্পর্কে বলেন রাজ্জাকের ছেলে বাপ্পারাজ। ছবি: আবদুস সালামনায়করাজকে নিয়ে স্মৃতিচারণা করেন অভিনেত্রী সুজাতা। ছবি: আবদুস সালামজহির রায়হান পরিচালিত ‘বেহুলা’ ছবিতে একসঙ্গে অভিনয় করেছিলেন রাজ্জাক ও সুচন্দা। ছবি: আবদুস সালামশোকসভায় এসেছিলেন অভিনেত্রী রোজিনা। ছবি: আবদুস সালামরাজ্জাককে নিয়ে স্মৃতিচারণা করেন পরিচালক আমজাদ হোসেন। ছবি: আবদুস সালামএসেছিলেন অভিনেত্রী চম্পা। ছবি: আবদুস সালামশোকসভা পরিচালনা করেন অভিনেতা ফেরদৌস। ছবি: আবদুস সালামফারুক, সোহেল রানা ও আলমগীর। ছবি: আবদুস সালামরাজ্জাক সম্পর্কে বলতে গিয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন অভিনেত্রী নূতন। ছবি: আবদুস সালামবক্তব্য দেন অরুণা বিশ্বাস। ছবি: আবদুস সালামরাজ্জাককে নিয়ে নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করেন চলচ্চিত্র জগতের সবার প্রিয় ‘মিয়া ভাই’ ফারুক। ছবি: আবদুস সালামরাজ্জাককে নিয়ে স্মৃতিচারণা করতে গিয়ে পুরোনো দিনে ফিরে যান সোহেল রানা। ছবি: আবদুস সালামবক্তব্য দেন রাজ্জাকের কাছের মানুষ, অভিনেতা আলমগীর। ছবি: আবদুস সালামআরও ছবি সৎ থাকার কারণে নিজেদের বাড়ির একটা অংশ বিক্রি করে দিতে হয়েছিল জানিয়ে বাপ্পারাজ বলেন, ‌‘আমাদের এত বড় একটা বাড়ি ছিল, ব্যবসায় ক্ষতি করার পরে ব্যাংকের মাত্র চার কোটি টাকা ঋণ ছিল। লাখ লাখ, কোটি কোটি টাকা মানুষ মেরে দেয়, আবুল-করিম-গফুররা এমন করে, কোনো কথা ওঠে না কখনো। কিন্তু রাজ্জাক সাহেবের নামে আসবে, রাজ্জাক সাহেব চার কোটি টাকা মেরে দিয়েছেন, ব্যাংকে ডিফল্টার। আমরা আমাদের বাড়ি বিক্রি করে লোন শোধ করে দিয়েছি। আমরা অসৎ হলে মেরে দিতে পারতাম ওই টাকা। আরও বাড়ি করতে পারতাম, ডেভেলপার দিয়ে ফ্ল্যাট বানাতাম। এই ফ্ল্যাটগুলো কিন্তু আমাদের না, সেগুলো আমরা বিক্রি করে দিয়েছি। ওখানে আমাদের কোনো ফ্ল্যাট নেই।’