কালো পতাকা মিছিলে বান্দরবানে পুলিশি বাঁধা বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষে কেন্দ্রীয় নেত্রী মাম্যাচিং’সহ আহত-১৫

প্রকাশ:| বুধবার, ২৯ জানুয়ারি , ২০১৪ সময় ০৬:০৪ অপরাহ্ণ

b 29.1
বান্দরবান প্রতিনিধি ॥
বান্দরবানে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষে কেন্দ্রীয় নেত্রী মাম্যাচিং’সহ ১৫ জন আহত হয়েছে। এ সময় বাজারে পুলিশের সঙ্গে মাম্যাচিং গ্রুপের নেতাকর্মীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া এবং ইট-পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। বুধবার বিকালে বান্দরবান বাজারসহ আশপাশের এলাকাগুলোতে সংঘর্ষের এই ঘটনা ঘটে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গত ৫ জানুয়ারীর নির্বাচন ও অবৈধ সংসদ অধিবেশন বাতিলের দাবীতে বুধবার বিকালে বান্দরবান বাজারের পৌর শপিং কমপ্লেক্সের সামনে থেকে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির উপজাতীয় বিষয়ক সম্পাদক মাম্যাচিং’য়ের নেতৃত্বে স্বেচ্ছাসেবকদল, যুবদল, ছাত্রদল, মহিলাদল এবং বিএনপির একাংশের নেতাকর্মীরা শহরে কালো পতাকা বিক্ষোভ মিছিল করেছে। এসময় ট্রাফিকমোড় চত্বরে পুলিশ বিএনপির মিছিলে বাঁধা দিলে পুলিশের সঙ্গে নেতাকর্মীরা বাকবিতন্ডা, ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। দফায় দফায় চলে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া এবং ইট-পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা। এ ঘটনায় পুলিশের লাঠি চার্র্জে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির উপজাতীয় বিষয়ক সম্পাদক মাম্যাচিং, স্বেচ্ছাসেবকদল সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, স্বেচ্ছাসেবকদল নেতা মোহাম্মদ বেলাল, আব্দুর রশীদ, মহিলা নেত্রী সাইচিং মারমা’সহ বিএনপি এবং পুলিশের প্রায় ১৫ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশ স্বেচ্ছাসেবকদল নেতা মো: বেলাল’কে আটক করা হলেও পরে ছেড়ে দেয়া হয়। পরে পুলিশি বাঁধায় বাজারস্থ পৌর শপিং কমপ্লেক্সের সামনে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেত্রী মাম্যাচিং এর সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন স্বেচ্ছাসেবকদল সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, যুবদল সভাপতি মশিউর রহমান মিঠুন, সাধারণ সম্পাদক নেজাম চৌধুরী, জাতীয় পার্টির নেতা আব্দুচ ছুবুর, মহিলাদলের যুগ্ন আহবায়িকা উম্মে কুলসুম লীনা, পৌরশাখা যুবদলের সভাপতি আইয়ুব খান, জেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আলী হায়দার বাবলু’সহ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।
অপরদিকে পুলিশি বাঁধায় বাান্দরবান বাজারস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে জেলা বিএনপির সভাপতি সাচিং প্রু জেরীর সভাপতিত্বে বিএনপির অপর অংশের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে পুলিশ বাঁধা দেয়ায় বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। তবে পুলিশের কোনো সদস্য আহত হয়নি বলে দাবী করেছে তিনি।