কাপ্তাই ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে হয়রানী মূলক মামলা দায়ের

mirza imtiaz প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ৪ সেপ্টেম্বর , ২০১৮ সময় ০৪:০৩ অপরাহ্ণ

স্বাক্ষর জালিয়াতির প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন

নজরুল ইসলাম লাভলু, কাপ্তাইঃ
কাপ্তাই ইউপি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী আবদুল লতিফকে হয়রানী মূলক মামলায় জড়ানো এবং তার নিকট টাকা পাবে মর্মে পরিষদের প্যাডে অঙ্গীকার নামা লিখাসহ স্বাক্ষর জালিয়াতির মাধ্যমে তার সুনাম ক্ষুন্ন করার প্রতিবাদে গতকাল মঙ্গলবার এক সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সকল ইউপি সদস্যের উদ্যোগে ইউনিয়ন পরিষদ হলরুমে অনুষ্ঠিত সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ইউপি সদস্য সজিবুর রহমান। লিখিত বক্তব্যে বলেন, ব্যাংছড়ি মুসলিম পাড়া নিবাসী দেলোয়ার হোসেন ওরফে নফর আলী (৫৩) পিতাঃ মোঃ মনোহর আলী গত ২৫ জুন ২০১৮ইং একটি লিগ্যাল নোটিশের মাধ্যমে জানান, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ বিভিন্ন সময় তার কাছ থেকে নগদ অর্থ ও মালামাল ক্রয় বাবদ সর্বমোট ১৩ লাখ ৪৬ হাজার টাকা নিয়েছেন। উক্ত টাকা আদায়ের লক্ষ্যে নফর আলী রাঙ্গামাটি জেলা চীফ জুডিসিয়াল আদালতে ২৮/০৮/২০১৮ইং তারিখে একটি হয়রানী মূলক মামলা দায়ের করেন। এছাড়া উক্ত নফর আলী চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর জালিয়াতি ও ব্যক্তিগত ব্যবসায়িক কাজে ইউনিয়ন পরিষদের প্যাড ব্যবহার করেন। এ ধরনের মিথ্যা, হয়রানী মূলক মামলা ও স্বাক্ষর জালিয়াতির প্রতিবাদে ইউপি সদস্যরা সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করেন। লিখিত বক্তব্যে আরোও বলা হয়, তার দায়েরকৃত মামলাটি মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। তারা বলেন, অভিযোগকারী নিজেই একজন মাদকাসক্ত, ঝগড়াটে, ভুমিখেকো, সন্ত্রাসী ও ইয়াবা ব্যবসায়ী হিসেবে এলাকায় পরিচিত। তার এ ধরনের ন্যাক্কারজনক কর্মকান্ডের তীব্র প্রতিবাদ জানানো হয় সাংবাদিক সম্মেলন থেকে। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী আব্দুল লতিফ এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, নফর আলীর সাথে আমার অর্থের লেনদেন হলে সেটা আমাদের ব্যবসায়িক প্যাডেই চুক্তিনামা হবে, অঙ্গীকার নামা নয় এবং পরিষদের প্যাডেও নয়। নফর আলী অঙ্গীকার নামা প্যাড এবং আমার স্বাক্ষর জালিয়াতি করে মিথ্যা প্রমাণ সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে বলে আমি মনে করি। এ বিষয়ে দেলোয়ার হোসেন ওরফে নফর আলীর দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে, তিনি বলেন আমার পাওনা টাকা না দেয়ার জন্যই তারা আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ করছেন। তাদের এসব অভিযোগ শুধুমাত্র পাওনা টাকা না দেয়ার জন্যই করা হচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন ইউপি সদস্য সমলেন্দু বিকাশ দাশ, আবু সালেহ, সুইউপ্রু মারমা সুপ্রিয়, আবদুল আহাদ সেলিম, নবীন কুমার তনচংগ্যা, জাহেদুল ইসলাম, রুপা তনচংগ্যা, জোবেদা আক্তার লাভলী, সুজয় বিকাশ চাকমা, মহিন উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি নুর উদ্দিন সুমন, অবঃ সার্জেন্ট হাজী কবির আহম্মদ, সাংবাদিক নজরুল ইসলাম লাভলু, কাজী মোশারফ হোসেন, মোঃ কবির হোসেন, নুর হোসেন মামুন, আলমগীর কবির প্রমুখ।


আরোও সংবাদ