কাচারী সড়কে সরকার দলীয় রাজনীতিবিদদের ছত্র-ছায়ায় অবৈধভাবে নলকূপ স্থাপন

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৬ সেপ্টেম্বর , ২০১৩ সময় ১১:৫২ অপরাহ্ণ

হাটহাজারী প্রতিনিধি>>Hathazarনবািববিi Image (Zila Parishad Land)হাটহাজারী পৌরসভার ব্যস্ততম সড়কটি কাচারী সড়ক। আর এই সড়কের পোষ্ট অফিস সংলগ্ন সড়কটির একটা অংশ দখল করে সরকার দলীয় রাজনীতিবিদদের ছত্র-ছায়ায় সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সাথে আতাত করে এক প্রভাবশালী ব্যাক্তি নিজের ব্যবহারের গভীর নলকূপটি বসাচ্ছে বলে জানা গেছে। এছাড়া নলকূপ বসাতে গিয়ে কাচারী সড়কটির একটি অংশ ভেঙ্গে এ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে প্রশাসনের নাকের ডগায়। তবে তা নিয়ে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন রহস্যজনক কারণে নিরব ভূমিকায় পালন করছে। ফলে উক্ত সড়ক ব্যবহারকারী ব্যাংক-বীমা, শপিং মল, চাকুরীজিবি, মহাবিদ্যালয় ও বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সহ সাধারণ জনগণকে চলাচল করতে বেশ হিমশিম খেতে হচ্ছে।
সরজমিনের ঘুরে দেখা গেছে, হাটহাজারী পৌরসভার ব্যস্ততম কাচারী সড়কের পোষ্ট অফিস সংলগ্ন এলাকায় চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের ভূমি দখল করে অবৈধভাবে নলকূপ বসানোর কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। উক্ত এলাকার মো: লোকমান সওদাগর নামে এক প্রভাবশালী ব্যক্তি সরকার দলীয় রাজনীতিবিদদের ছত্র-ছায়ায় স্থানীয় প্রশাসনকে আতাত করে এ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।
নাম প্রকাশে অনিশ্চুক এন. জহুর মার্কেটের এক ব্যবসায়ী এই প্রতিবেদককে জানান, সে (লোকমান সওদাগর) ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে এই অনৈতিক কাজ দিনে দুপুরে চালিয়ে যাচ্ছে। তার পেশী শক্তি ও দাপটের শোরে এমনকি স্থানীয় প্রশাসনও রহস্যজনক কারণে এই কাজে বাধাঁ দিতে সাহস পাচ্ছে না। আর এই নলকূপ বসানোর ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ কোন ব্যবস্থা গ্রহন না করে আমাদেরকে বেশ দূর্ভোগে পড়তে হবে। এছাড়া এই সড়কটিতে যান চলাচল অনেকাংশে বিঘিœত হবে।
আর এই দৃশ্যটা র্কতৃপক্ষের নজরে কেনই চোখে পড়ছে না তা কিন্তু বিজ্ঞ মহলের কাছে বোধগম্য নয়। আর এ কথাটি এখন এলাকার সাধারণ জনগনের কাছে এক আর্শ্চানক বিষয়। উক্ত এলাকায় লোকমান সওদাগর অবৈধভাবে দখল করে সড়কটির একটা অংশ ভেঙ্গে নিজের ব্যহারের জন্য বসাচ্ছে গভীর নলকূপ। অথচ ওই স্থান থেকে মাত্র ৫শ গজ দূরে পৌরসভার কার্যলয়।
তাছাড়া গভীর নলকূপ বসানোর অনুমতি প্রসঙ্গে লোকমান সওদাগর এর কাছে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি এই প্রতিবেদকে জানান, তারা পৌরসভার থেকে অনুমতি নিয়েছে। তবে জেলা পরিষদ থেকে কোন প্রকার অনুমতি নিয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি তেমন কোন সৎ উত্তর দিতে পারেন নি।
এ ব্যাপারে হাটহাহাজারী পৌরসভার প্রকৌশলী বেলাল আহম্মেদ এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমরা তাকে অনুমতি দিয়েছি তার নিজস্ব ভূমিতে গভীর নলকূপ বসানোর জন্য। তবে জেলা পরিষদের জায়গায় সড়ক ভেঙ্গে কেন এই কাজ করতে অনুমতি দিনাই।
বিষয়টি নিশ্চত করতে চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের প্রশাসক এম এ ছালাম এর কাছে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি এই প্রতিবেদককে জানান, বিষয়টি আমি ক্ষতিয়ে দেখছি এবং এই ব্যাপারে আইনানুক ব্যবস্থা গ্রহন করছি।