কাউন্সিলর হারুনর রশীদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার হচ্ছে ওয়ার্ড ছাত্রলীগের নিন্দা ও প্রতিবাদ

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ৯ ফেব্রুয়ারি , ২০১৬ সময় ০৭:৫৬ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ১৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর সম্মানহানী করে মিথ্যাচার করার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছে ওই ওয়ার্ডের ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ১৮ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক মানিক স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ প্রতিবাদ ও নিন্দা জানানো হয়।

প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, চট্টগ্রামের ১৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর হারুনর রশিদের বিরুদ্ধে এক স্কুল ছাত্রীকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করতে বাধা দেওয়ার যে অভিযোগ এনেছেন তা ভিত্তিহীন ও গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ।

কারণ ওই ছাত্রী নিজেই ৬ ফেব্রুয়ারী করা সংবাদ সস্মেলনে বলেছেন, ‘তার বাবা তাকে ও তার মাকে নির্যাতন করে ঘর থেকে বরে করে দিয়েছেন। এরপর থেকে তারা নানা বাড়ি থাকতেন। পরে নানা বাড়ি থেকে এসএসসি পরীক্ষা নির্বাচনী পরীক্ষায় ওই ছাত্রী অংশ নিতে পারেননি। পরে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিতে আসলে তার পিতা তাকে বাড়িতে এনে বন্দি করে রাখেন। এ কারণে তিনি এসএসিিস পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেননি।’

ওই ছাত্রীর বক্তব্য থেকেই বোঝা যায় এ ঘটনাটি একান্তই তাদের পারিবারিক বিষয়। এছাড়া বাকলিয়া সানোয়ারার উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকাও পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়ে জানিয়েছেন সানজিদা তামান্না পায়েল এসএসসি পরীক্ষার আগে নির্বাচনী পরীক্ষায় অংশ না নেননি। তাই সানজিদাকে নিয়ম অনুযায়ী এসএসসি পরীক্ষায় বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অংশ গ্রহনের সুযোগ দিতে পারেননি।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ চট্টগ্রাম মহানগরের ১৮ নম্বর ওয়ার্ড কমিটির নের্তৃবৃন্দ মনে করে এই ঘটনায় জামায়াত-শিবির চক্র ইন্ধন দিয়ে ওই ছাত্রীর এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করতে না পারা সাথে বাকলিয়ার কৃতি সন্তান ও মুজিব রনাঙ্গনের সেনাপতি বাকলিয়া ১৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও নির্বাচিত কাউন্সিলর হারুনর রশীদকে জড়িয়ে ফায়দা হাসিলের চেষ্টা চালিয়েছে।

কিন্তু মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে জনগণের নেতা হারুনর রশিদের নের্তৃত্বকে তারা বিতর্কিত করতে পারেনি। আমরা বাংলাদেশ ছাত্রলীগ চট্টগ্রাম মহানগরীর ১৮ নম্বর ওয়ার্ড শাখার নের্তৃবৃন্দ এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে।