কাউকে না জানিয়ে জাম্বুরি পার্কে মন্ত্রী মোশাররফ

mirza imtiaz প্রকাশ:| শুক্রবার, ১৪ সেপ্টেম্বর , ২০১৮ সময় ১২:৪৪ অপরাহ্ণ

কাউকে না জানিয়ে গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন সাড়া জাগানো জাম্বুরি পার্কে সারপ্রাইজ ভিজিট করলেন। কথা বললেন শরীর চর্চা করতে আসা নানা বয়সী মানুষের সঙ্গে। জানতে চাইলেন, পার্কে আর কী কী সংযোজন করা যায়।

দিকনির্দেশনা দিলেন গণপূর্ত বিভাগের কর্মকর্তাদের। শুধু আকস্মিক পরিদর্শন আর দিকনির্দেশনা নয়, পাক্কা এক ঘণ্টা হাঁটলেন পুরো পার্কে।

শুক্রবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকালে নন্দনকাননের বাসা থেকে চালককে নিয়ে বেরিয়ে পড়েন মন্ত্রী। সোজা আগ্রাবাদের জাম্বুরি পার্কে। খবর পেয়ে পড়িমরি করে ছুটে আসেন গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আহমেদ আবদুল্লাহ নূরও।

প্রকৌশলী নূর বলেন, ৮ দশমিক ৫৫ একর জমির ওপর সাড়ে ১৮ কোটি টাকা ব্যয়ে ৮ হাজার রানিং ফুটের পার্ক ও ৫০ হাজার বর্গফুটের জলাধার পরিচ্ছন্ন রাখতে মন্ত্রী গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনা দিয়েছেন। ফোয়ারার পাইপগুলোতে (নজল) যাতে বাদামের খোসা, পলিথিন, প্লাস্টিক ঢুকে নষ্ট না হয় সে জন্য ফোয়ারা বরাবর জাল (নেট) বসাতে বলেছেন। আধঘণ্টা পর পর পার্কে আসা লোকজনকে পরিচ্ছন্নতার ব্যাপারে সচেতন করতে মাইকে ঘোষণা দিতে বলেছেন। পার্কে কিছু কবুতর পোষার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন।

পার্কে আসা লোকজনের সঙ্গে কথা বলেন গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনযারা পার্ক অপরিচ্ছন্ন করবে, ময়লা ফেলবে সিসিটিভিতে নজরদারির মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে তাদের দিয়ে পরিচ্ছন্ন করানোর জন্য বলেছেন মন্ত্রী।

এক প্রশ্নের উত্তরে প্রকৌশলী নূর বলেন, প্রতিদিন সকাল সাড়ে পাঁচটা থেকে ১০টা পর্যন্ত এবং বিকেল তিনটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত পার্ক খোলা রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ প্রকল্পের উদ্দেশ্য হচ্ছে শরীর চর্চার জন্য প্রশস্ত ও দীর্ঘ জগিং ট্র্যাক, বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের মানসিক প্রশান্তির জন্য উন্মুক্ত উদ্যান এবং নির্মল বাতাসের জন্য জলাধার স্থাপন।

গত ৮ সেপ্টেম্বর জাম্বুরি পার্কের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন গণপূর্তমন্ত্রী।


আরোও সংবাদ