কবি নির্মলেন্দু গুন আগামী নির্বাচনে প্রার্থী হতে চান

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ২৮ নভেম্বর , ২০১৩ সময় ০৭:৪৪ অপরাহ্ণ

নির্মলেন্দু গুনকবি নির্মলেন্দু গুন আগামী নির্বাচনে প্রার্থী হতে চান। সতন্ত্রভাবেই নির্বাচনে অংশ নিতে চান তিনি। আজ দুপুরে নিজের ফেইসবুক স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, ১৯৯১ সালের পর আর কোনো নির্বাচনে দাঁড়াইনি। ১৯৯৬ এর দুটি, ২০০১ ও ২০০৮ এ আমার চোখের সামনে দিয়েই চার-চারটি সংসদ নির্বাচন হয়ে গেছে। আমি তার একটিতেও দাঁড়াইনি। ধৈর্য্য ধরে মাটি কামড়ে পড়ে ছিলাম। সুবোধ নাগরিকের মতো প্রতিটি নির্বাচনেই ভোট দিয়েছি। অন্যকে ভোট দিয়েছি। যদিও জানি অন্যকে ভোট দেয়ার জন্য আমার জন্ম হয়নি। এবার যেন কেমন-কেমন লাগছে। অন্য কাউকে ভোট দিতে একেবারেই মন চাইছে না। কী করা য়ায়? ভাবছি। খুব ভাবছি।
তবে কবি এবারের নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর জামানত কত তা সঠিক জানেন না। এ বিষয়ে তিনি নির্বাচন কমিশন সচিব ‘কবি’ ড. মুহম্মদ সাদিকের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। গুন তার স্ট্যাটাসে আরও লিখেন, ১৯৯১ সালে যখন নির্বচন করেছিলাম, তখন আমার এলাকাবাসী আমাকে নামে জানতেন, কিন্তু কামে জানতেন না, চোখে চিনতেন না। গত পাঁচ বছর গ্রামে কিছু কাজ করেছি। কাশবন গড়ে তুলেছি। একটি কাঁচা রাস্তা পাকা করেছি। এলাকার মন্দির-মসজিদে সরকারের কাছ থেক অর্থ সাহায্য এনে দিয়েছি। প্রতি মাসে গ্রামে গিয়েছি কম করেও একবার। অনেকসময় বেশিও গিয়েছি। নামের পাশাপাশি আমার এলাকাবাসী আমাকে এখন চোখেও চিনেছেন। এমতাবস্থায় শেষ পর্যন্ত নিজেকে নির্বাচন থেকে সরিয়ে রাখতে পারবো বলে মনে হচ্ছে না। একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিতে ৫০০ ভোটারের সমর্থন লাগবে বলে শুনেছি। সংখ্যাটা একটু বেশি হয়ে গেলো। বিরক্তিকর। তা লাগুক। কোনো সমস্যা হবে না। আওয়াজ দিলেই হাজার ভোটার কাশবনে এসে হাজির হবেন।
অতীতের স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, ১৯৯১ সালে নির্বাচনে আড়াই লক্ষ টাকা খরচ করেও পাশ করতে পারিনি। কিন্তু এবার জামানতের টাকা দিয়েই ভবতরী পাড়ি দিতে পারবো বলে ধারণা করছি। বিনা খরচে নির্বাচন করে বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে বাংলাদেশের রাজনীতিবিদদের দেখিয়ে দিব নাকি? আপনারা কী বলেন?
তার এই স্ট্যাটাসে ভক্ত ও পাঠকেরা নানা মন্তব্য করেছেন। অনেকেই তাকে স্বাগত জানিয়ে তার পক্ষে নির্বাচনে ক্যাম্পেইনের জন্য রাজি হয়েছেন। কেউ কেউ তার নির্বাচনের খায়েশকে সমর্থন করেননি। ফেইসবুকে জাকির খান কামাল নামে একজন মন্তব্য করেছেন, ডিজিটাল যুগে কবিতার বাজার মূল্য খুবই কম কারন ক্রেতা কম। প্রিয় কবি, ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নিন। পাছে কবিতার সাথে কবিরও যদি দরপতন ঘটে। আরেকজন লিখেছেন, আপনি কবি হিসাবে ভাল, এমপি হিসাবেও ভাল হবেন তার গ্যারান্টি কি?