কপ্তাইয়ে ১৮ শিবির কর্মী আটক

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১৫ আগস্ট , ২০১৭ সময় ০৯:২৭ অপরাহ্ণ

কাপ্তাই (রাঙামাটি) প্রতিনিধিঃ
কপ্তাইয়ের বাংলাদেশ সুইডেন পলিটেকনিক ইনষ্টিউটের ১৮ শিবির কর্মীকে পুলিশ গত সোমবার রাতে আটক করেছে ছাত্র শিবির পরিচালিত একটি মেস থেকে। জিহাদী বই প্রচার ও জনগনের মাঝে সরকার বিরোধী উত্তেজনা ছড়ানোর অভিযোগে তাদের আটক করা হয় বলে কাপ্তাই থানা সূত্রে জানা গেছে। কাপ্তাই উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এম নুর উদ্দিন সুমন জানান, দীর্ঘদিন ধরে শিল্প এলাকায় অবস্থিত জাকির হোসেন স’মিল এলাকার প্রিজম কোচিং সেন্টার নামের মেসটি শিবির দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে। মেসে শিবিরে নেতাকর্মীরা সরকার বিরোধী বিভিন্ন কর্মকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। ঘটনার দিন সন্ধ্যায় শিবিরের একটি গোপনীয় মিটিং হওয়ার কথা । এ খবর পাওয়ার পর ছাত্র নেতা সুমনের নেতৃত্বে বেশ কিছু ছাত্রলীগ নেতা কর্মী ওই মেসে হানা দেয় । ছাত্রলীগের হানা দেওয়ার পূর্বে শিবির কর্মীরা মেস থেকে সটকে পড়ে। পরে সেখানে তল্লাশি চালিয়ে বেশ কিছু জিহাদী বই , লিফলেট, শিবিরের চাঁদার বই, সদস্য ফরম, সিডি ও দুটি ল্যাপটপ উদ্ধার করা হয় ছাত্রনেতা সুমন জানায়। বিষয়টি থানায় জানানো হলে কাপ্তাই থানা পুলিশ এসে উদ্ধারকৃত জিহাদী বই, লিফলেট ও অনান্য বই জব্দসহ ১৮ শিবির কর্মীকে আটক করে। আটককৃতরা হল ১ম বর্ষের রাব্বি হোসেন, শরিফুল ইসলাম,রফিকুল ইসলাম,জাহিদুল ইসলাম,আরমান বিন আফসার, রিদুয়ান আহম্মেদ,আব্দুল আলিম,আজিমুজ্জামান,মোঃ আশরাফ, মোঃ আলআমিন,২য় বর্ষের মোঃ মাঈনুদ্দিন হাসান,মোঃ হাসান, মোঃমাজেদুর রহমান,মোঃ নুরুল আমিন,মোঃ বেলাল হোসেন,কাউসার আলম,মনির হোসেন শুভ এবং ৩য় বর্সের মোঃ ইমাম উদ্দিন। মেস পরিচালক ৩য় ও ৪র্থ বর্ষের ছাত্র মাসুদ রানা এবং মোঃ আতিক পলাতক রয়েছে। এ ব্যাপারে পলিটেকনিক ইনষ্টিউটের অধ্যক্ষ আশুতোষ নাথের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ছাত্র আটকের সত্যতা শিকার করে বলেন, কলেজ ক্যাম্পসের বাইরে অবস্তিত ওই মেসে এ ধরনের কর্মকান্ড চলছে তা আমাদের জানা নেই । মেসে ১ম বর্ষের কিছু ছাত্র উঠেছে জানি। যদি অভিযোগ সত্য হয় তাহলে প্রশাসন নিয়ম অনুযায়ী আটককৃতদের বিরুদ্দে ব্যবস্থা নিবে। নির্দোষ কোন ছাত্র যাতে হয়রানি না হয় তার জন্য তিনি প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ করেন। কাপ্তাই থানার ওসি সৈয়দ মোহাম্মদ নুর জানান, আটককৃতদের বিরুদ্ধে জিহাদী বই প্রচার ও জনগনের মাঝে সরকার বিরোধী উত্তেজনা ছড়ানোর অভিযোগে মামলা হয়েছে। আটক ছাত্রদের মঙ্গলবার জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। রিমান্ড আবেদনের ম্যাধমে আরও তথ্য উদ্ঘাটিত হবে বলে তিনি জানান।