কঠোর নজরদারির ফলে সরকারি কোষাগারে ৮২ লাখ টাকা

প্রকাশ:| বুধবার, ২৯ নভেম্বর , ২০১৭ সময় ০৯:০৭ অপরাহ্ণ

 ইতালি থেকে ক্রেন আমদানি করে প্রায় ৮২ লাখ টাকা ফাঁকি দেওয়ার চেষ্টা করেছিল ঢাকার আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান প্যারেন্টস এন্টারপ্রাইজ। শুল্ক গোয়েন্দার কঠোর নজরদারির ফলে সরকারি কোষাগারে জমা হয়েছে এ রাজস্ব।

জানা গেছে, ঢাকার মিরপুর সেনপাড়া এলাকার আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানটি ইতালি থেকে প্রায় ৩ কোটি টাকার মোবাইল লিফটিং ফ্রেম ঘোষণা দিয়ে স্পেশাল পারপাস মোটর ভেহিকেল খালাসের চেষ্টা করে। বন্দরে আসার পর চালানটি খালাস নিতে আমদানিকারকের পক্ষে সংশ্লিষ্ট সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট প্রতিষ্ঠান তাকিন ট্রেড সিন্ডিকেট গত ২২ অক্টোবর বিল অব এন্ট্রি (সি-১৩২২৮০৭) দাখিল করে ।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুল্ক গোয়েন্দা ৩০ অক্টোবর খালাস পর্যায়ে চালানটি স্থগিত করে। পরে শতভাগ কায়িক পরীক্ষা করা হয়। এতে চারটি ওয়ার্কস ট্রাক ফিটেট উইথ ক্রেন।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর চট্টগ্রাম কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক তারেক মাহমুদ জানান, আমদানিকারকের ঘোষণা অনুযায়ী চালানটির শুল্ককর প্রয়োজ্য ছিল ২ লাখ ২৩ হাজার ১৮৭ টাকা। কিন্তু কায়িক পরীক্ষায় পাওয়া পণ্যের শুল্ককর ৬৫ লাখ ৩৮ হাজার ১৬৪ টাকা।

মিথ্যা ঘোষণায় চালানটি আমদানি করায় প্রযোজ্য শুল্ককর আদায়ে চট্টগ্রাম কাস্টমস কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেয় শুল্ক গোয়েন্দা। এর প্রেক্ষিতে মিথ্যা ঘোষণা দেওয়ায় প্রযোজ্য শুল্ককরসহ আরও ১৬ লাখ টাকা জরিমানা আরোপ করে। পরে ৮১ লাখ ৩৮ হাজার ১৬৪ টাকা সরকারি কোষাগারে জমা দেওয়ার পর চালানটি খারাসে বুধবার (২৯ নভেম্বর) অনাপত্তিপত্র দেয় শুল্ক গোয়েন্দা।