কক্সবাজারে পানিতে বন্দি টেকনাফ ও শাহাপরীর দ্বীপ সেন্টমার্টিন

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ৫ জুলাই , ২০১৬ সময় ০৮:৩৬ অপরাহ্ণ

টেকনাফফরহাদ রহমান, টেকনাফ প্রতিনিধি:
একদিন পর ঈদ তুবও আনন্দে নেই টেকনাফ, সের্ন্টমাটিন-শাহপরীর দ্বীপের লোকজনের মাঝে। কেননা টানা বৃষ্টি ও জোয়ারের পানিতে বেড়ীবাঁধ দিয়ে পানি ঢুকে ওইসব এলাকার বেশ কয়েকটি গ্রাম পানিতে থৈ থৈ করছে। এতে পুরো দ্বীপবাসীরা অতংকের মধ্যে রয়েছে। এছাড়া টেকনাফ পৌর সভা জালিয়া পাড়া, দক্ষিন পাড়া, চৌধুরী পাড়াসহ বেশ কয়েকটি গ্রাম পানির নিচে রয়েছে। অপরদিকে শাহপরীর দ্বীপের প্রায় ৩৫ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে আছে। তাদের মাঝে নেই ঈদের আমেজ। বিশেষ করে দ্বীপের পর্যটকদের আকর্ষনীয় চিরাদিয়াদ্বীপে জোয়ারের পানি উঠানামা করছে এবং এতে এর প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য হারাতে বসেছে। সেন্টমার্টিনদ্বীপ থেকে চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুর আহমদ জানান, সম্প্রতি অমানিশা সামুদ্রিক জোয়ারের পানি উচ্চতা বৃর্দ্ধি পাওয়ার ফলে সেন্টমার্টিনদ্বীপের উত্তর পশ্চিম ও দক্ষিণাংশের বেড়ীবাঁধ ভেঙ্গে সামুদ্রিক জোয়ারের নুনা পানি প্রবেশ করেছে। এতে ৩টি পাড়া যথাক্রমে দক্ষিণ পশ্চিম ও উত্তরপাড়া নীচু এলাকা প্লবিত হয়েছে। এমতাবস্থায় চাষাবাদ এখন অনিশ্চিৎ হয়ে পড়েছে। জলবায়ু পরিবর্তন এবং সমূদ্রের জোয়ারের পানি উচ্চতা বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে বর্তমান বেড়ীবাঁধ জোয়ারের পানি ঠেকাতে ব্যর্থ হয়েছে। তাই সাগরের ভাংগন থেকে প্রবালদ্বীপকে রক্ষা করতে হলে জরুরী ভিক্তিতে টেকসই বেড়ীবাঁধ নির্মাণ করা অতীব প্রয়োজন বলে দ্বীপের বসবাসরত লোকজন জানান। নইলে পুরোদ্বীপ সাগরের বক্ষে চলে যাবে। এমন আশংখা করছেন অনেকেই। এ সাগরের গ্রাস থেকে রক্ষার্থে এ দ্বীপ রক্ষাকারী বেড়ীবাঁধকে কক্সবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাওবো) অধীনে নিয়ে আসার জন্য পুরোদ্বীপবাসী সংশ্লিষ্ঠদের প্রতি জোরদাবী জানিয়েছে।