কক্সবাজারে ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ার প্রার্দুভাব

প্রকাশ:| বুধবার, ২৪ মে , ২০১৭ সময় ০৩:৩৮ অপরাহ্ণ

সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও (কক্সবাজার) প্রতিনিধি: গরমের তীব্রতায় বেড়েছে শিশুদের ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ার পার্দুভাব। শহরের হাসপাতালগুলোতে ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে র্ভতি হয়েছে আসন শয্যার অতিরিক্ত রোগী।
সরেজমিনে সদর হাসপাতালের শিশু ওর্য়াড ও ডায়রিয়া ওর্য়াড পরির্দশন করে দেখা গেছে, শিশু ওয়ার্ডে ৪০ টি আসনের বীপরিতে রোগী রয়েছে প্রায় ৮০ জন রোগী। যার দুই তৃতীয়াংশই ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত। ডায়রিয়া ওয়ার্ডে ২০ টি শয্যা থাকলেও রোগী র্ভতি রয়েছে প্রায় ৪৫ জন । যার মধ্যে ২৫ জনই শিশু। ডায়রিয়া ওয়ার্ডের ইনচার্জ রতনা শ্রী মল্লিক বলেন ,এক সপ্তাহ ধরে ধারন ক্ষমতার অতিরিক্ত রোগী অবস্থান করছে। যার অধিকাংশই শিশু। শিশু ওয়ার্ডের কর্তব্যরত র্নাস জানিয়েছেন সপ্তাহ খানিক ধরে অস্বাভাবিক হারে ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা বাড়ছে। এ হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডের কনসালটেন্ট জেড সেলিম বলেন, প্রতিদিন প্রায় দেড়শ থেকে দুইশ রোগী বর্হিবিভাগে আসে। সপ্তাহ খানেক ধরে রোগীর সংখ্যা বেড়ে গেছে। তিনি জানান অতিরিক্ত গরমে শিশুরা ঘামে এর থেকে শরীরের পানি বের হয়ে যায়। বুকে ঠান্ডা বসে যায়। তাছাড়া তাদের খাওয়া দাওয়ায় অরুচি দেখা দেয়। ৬ মাস থেকে ৫ বছরের শিশুরায় বেশি আসছে বলে তিনি জানান। তিনি বলেন শিশুরা যখন থেকে মায়ের দুধের পাশাপাশি বাইরের খাবার খায় তখন থেকে তাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও কমতে থাকে। বাইরের খাবারের ফলে বদ হজম হয়। আর তা থেকে হয় ডায়রিয়া। শরীরে পানি শূন্যতা সৃস্টি হয় এবং দেখা দেয় হাইজেনিকের অভাব। আবহাওয়া পরিবর্তনের সাথে সাথে পরিবর্তন দেখা দেয় শিশুদের শরীরে। শুধু শিশুরাই নয় গরমে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে র্ভতি হচ্ছে বড়রাও। শিশুদের পাশাপাশি ডায়রিয়া ওয়ার্ডে ভর্তি হয়েছে বড়রাও।
হাসপাতালের সহকারি পরিচালক ডাঃ আখতারুল ইসলাম বলেন শুধু শিশুরাই নয় মাত্রতিরিক্ত গরমে কলেরা, ডায়রিয়া ,শ্বাসকস্ট ,পানিবাহিত বিধিন্ন রোগ ও বিভিন্ন ধরনের শারীরিক সমস্যা নিয়ে র্ভতি হচ্ছে মেডিসিন ওয়ার্ডে। গরমের সাথে সাথে যেন বাড়ছে রোগীর সংখ্যাও। সদর হাসপাতাল ছাড়া শহরের অন্যান্য হাসপাতালের খোঁজ নিয়েও একই চিত্র দেখা গেছে।