কক্সবাজারে গাড়ী ভাংচুরের মধ্য দিয়ে হরতালের ২য় দিন অতিবাহিত

প্রকাশ:| সোমবার, ২৮ অক্টোবর , ২০১৩ সময় ০৯:০৫ অপরাহ্ণ

মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, কক্সবাজার
কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন স্থানে গাড়ী ভাংচুর, ককটেল বিস্ফোরনের মধ্য দিয়ে বিএনপির ডাকা ৬০ ঘন্টার হরতালের দ্বিতীয় দিন অতিবাহিত হয়েছে । জেলার শহর ছাড়াওজেলার বিভিন্ন স্থানে রাজপথে ছিল আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কর্মীরা। মহাসড়কের রামু কলঘর বাজার থেকে কক্সবাজার সরকারী কলেজগেই পর্যন্ত এলাকায় অনন্তত ৬টি স্পটে ১৫টির অধিক যানবাহনের কাচের গ্লাস ভাংচর করা হয়েছে।
সোমবার সকাল ১১ টায় জেলা বিএনপির সভাপতি শাহজাহান চৌধুরীর নেতৃত্বে এক মিছিল শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে। শহরে ছাত্রদল শিবির পৃথক ভাবে পিকেটিং করে।
কক্সবাজার – চট্টগ্রাম মহাসড়কের খরুলিয়া, ঈদগাঁও, ফুলছড়ি নতুন অফিস সহ সড়কের বিভিন্ন স্থানে সড়ক অবরোধ করে রাখে ছাত্র দল ও বিএনপি কর্মীরা। দুপুর ২টার দিকে ফুলছড়ি নতুন অফিস বাজারের উত্তর পার্শ্বে বিএনপি-জামায়াত কর্মীরা সড়ক অবরোধ করে রাখলে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতারা তা প্রতিহত করেন। একই সময় ঈদগাঁও বাসস্টেশনে হরতালকারীরা ২ ছাত্রলীগ নেতাকে হামলা চালিয়ে আহত করে। কক্সবাজার- চট্টগ্রাম মহাসড়ক ছাড়াও আভ্যন্তরিন সড়ক গুলোতে কোন ধরনের যানবাহন চলাচল করেনি। কক্সবাজার শহর, চকরিয়া ও পেকুয়ায় পুলিশ , র‌্যাব ছাড়াও বিজিবি পুরো মহাসড়কে টহলের ছিল। পুরো চকরিয়া পৌর এলাকা দখলে রেখেছে আওয়ামীলীগ। কক্সবাজার শহরেও হরতাল বিরোধীদের মাঠে দেখা যায়নি। জেলা অন্যান্য স্থানে রাজপথ বিএনপি- জামায়াতের দখলে থাকলেও আওয়ামীলীগ ও অংঙ্গ সংগঠন মাঠে ছিল না।


আরোও সংবাদ