ঈদগাঁওয়ে লিচুর বাম্পার ফলন

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২৯ এপ্রিল , ২০১৬ সময় ০৯:৪৫ অপরাহ্ণ

লিচি
সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও (কক্সবাজার ) প্রতিনিধি ২৯ এপ্রিল
মধু মাস বৈশাখ এবং জৈষ্ঠ্য। আবহমান বাংলার চারদিকে এখন মধু ফলের মৌ মৌ গন্ধ। আম, কাঁঠাল, গাব’র পাশাপাশি ছোটবড় সবার কাছে অতি প্রিয় ও অত্যন্ত সুস্বাদু ফল লিচুতে সয়লাব হয়ে আছে বর্তমানে কক্সবাজার সদরের বৃহৎ বানিজ্য কেন্দ্র ঈদগাঁও বাজার। বৃহত্তর ঈদগাঁও’র বিভিন্ন এলাকায় এ বছর লিচুর বাম্পার ফলন হয়েছে বলে জানিয়েছে লিচু বিক্রেতা শফিক। তিনি আরও জানান, গত সপ্তাহ থেকেই বাজারে লিচু আসতে শুরু করেছে।
ভোমরিয়া ঘোনা গ্রামের লিচু চাষী আবদুল বাসেত জানান, অনুকুল আবহাওয়া এবং পোকামাকড়ের উপদ্রুপ কম থাকায় এবছর লিচুর ফলন বৃহত্তর ঈদগাঁও’র সর্বত্র ভাল হয়েছে। তিনি আরো জানান, তার বাগানে প্রায় ১শ’২৫টি লিচু গাছ রয়েছে। পাইকারেরা বাগান থেকে এসে লিচু কিনে নিয়ে যান। প্রথম অবস্থায় দাম খানিকটা বেশী মেলে। তিনি এবছর লিচু বিক্রি করে প্রায় সাড়ে ৩ লক্ষ টাকা আয় করতে পারবেন বলে আশা করছেন। ভোমরিয়াঘোনা ছাড়াও ঈদগাঁও’র ইসলামাবাদ, ইসলামপুর, কালিরছড়া এবং মাছুয়াখালীতে স্থানীয় জাতের লিচুর চাষ হয়। মুলতঃ ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে এবং উন্নত জাতের লিচু বাগান এখনও এখানে তেমন গড়ে উঠেনি বললেই চলে। অথচ ঈদগাঁও’র মাটি ও আবহাওয়া লিচু চাষের জন্য অনুকুল বলে মত দিয়েছেন স্থানীয় কৃষি বিশেষজ্ঞরা। কৃষি অধিদপ্তর এ ব্যাপারে স্থানীয় চাষীদের হাতে কলমে প্রশিক্ষন এবং উন্নত জাতের লিচু চাষ সম্পর্কে উৎসাহিত করলে লিচু চাষ করে অনেকের বেকারত্ব ঘোছানোর পাশাপাশি উৎপাদিত লিচু ঈদগাঁও ছাড়াও জেলার বাইরে বিক্রি করে প্রচুর টাকা উপার্জন করা সম্ভব হত বলে অভিমত ইসলামাবাদের লিচু চাষী আহমদ করিমের।
এব্যাপারে জানতে কক্সবাজার সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার অফিসায়াল ফোনে অনেকবার যোগাযোগ করা হলেও ফোন রিসিভ না করাতে তাদের মতামত জানা যায়নি। ফল বিক্রেতা আনচারুল করিম জানান, তিনিসহ অন্যান্য ফল ব্যবসায়ীরা বৃহত্তর ঈদগাঁও’র বিভিন্ন এলাকা এবং চট্টগ্রামের বাঁশখালী থেকে লিচু পাইকারী দরে ক্রয় করে থাকেন। প্রতিশ লিচু তারা ১শ ১০ থেকে ১’শ পঁচিশ টাকার মধ্যে ক্রয় করে থাকেন। ক্রেতাদের কাছে সেগুলো ১৬০-১৮০ টাকার মধ্যে বিক্রি করে থাকেন। প্রথম প্রথম বলে বর্তমানে দামটা একটু বেশী বলে জানালেন অপর ফল ব্যবসায়ী রবি উল্লাহ। ক্রেতা মোঃ রশিদ জানান, তিনি ১শ লিচু ক্রয় করেছেন ২শ টাকা দিয়ে। খেতে সুস্বাদু বলেও জানান তিনি। অপর ক্রেতা সামিরা আক্তার জানান, বাচ্ছার জন্য তিনি ৫০ টি লিচু ক্রয় করেছেন ৯০ টাকা দিয়ে। সব মিলিয়ে মধু ফল খেয়ে তীব্রদাবদাহে মানুষ একটুও হলে স্বস্তি পাচ্ছে।