ওয়ার্ড কমিশনার,আ,লীগ নেতা ও পরিবারবর্গকে কাফনের কাপড় ও চিঠি পাঠিয়ে হত্যার হুমকী

প্রকাশ:| শনিবার, ১১ ফেব্রুয়ারি , ২০১৭ সময় ০৯:১৯ অপরাহ্ণ

হাটহাজারী প্রতিনিধি
হাটহাজারীর ফতেয়াবাদস্থ সিটিকর্পোরেশন ১নং পাহাড়তলী ওয়ার্ডের সাবেক কমিশনার জাফর আলম চৌধুরী ও তার পুত্রকন্যা পরিবারকে কাফনের কাপড় ও হত্যার হুমকী দিয়ে চিঠি প্রেরণের প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করেছে। গতকাল শনিবার বিকালে কমিশনারের বাড়িতে আয়োজিত সংবাদিক সম্মেলনের জাফর আলম তার বক্তব্যে বলেন, সন্ধীপ কলোনী এলাকার একটি ভূমিদূস্য,মাদক ব্যবসায়ী পাহাড় খেকো সন্ত্রাসীদল দীর্ঘদিন থেকে এলাকায় নানা অনৈতিক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে তিনি (জাফর আলম চৌধুরী) প্রতিবাদ করায় এ দলটি তার উপর ক্ষীপ্ত হয়ে কাফনের কাপড়ের সাথে চিঠি দিয়ে তাকে তার কলেজ পড়–য়া পুত্র আজোয়াত ইসরাত এবং চট্টগ্রাম সেনানিবাস স্কুলের ২য় শ্রেণীর ছাত্রী ওয়াদিয়া ইবনাতকে হত্যার হুমকী দিয়ে চিঠি প্রেরণ করায় তিনি পরিবার পরিজন নিয়ে জীবনের নিরাপত্তাহীনতা ভ’গছেন বলে তার বক্তব্যে উল্লেখ করে সাংবাদিকদের মাধ্যমে প্রশাসনের সহযোগীতা কামনা করেছেন। সন্ধীপ কলোনী এলাকার সন্ত্রাসী চক্রটি গত কিছু দিন পূর্বে তার কলেজ পড়–য়া ভাগিনা নুরুল আজম তুষারকে বেধরক পিঠুনী দেওয়ায় সে মারাত্মক আহত হয়ে চমেকহাসপাতালে এখনো মৃত্যুর মুখামুখী অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছে। চক্রটির অনৈতিক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে এলাকার সাধারণ মানুষ ফতেয়াবাদ এলাকায় মানববন্ধন করতে গেলে সন্ত্রাসী দলের সহযোগী হিসাবে খ্যাত থানার এক পুলিশ কর্মকর্তার নের্তৃত্বে শান্তিপূর্ণ মাবনবন্ধনে অংশগ্রহনকারীদের উপর লাঠি চার্জ করে মানববন্ধন প- করে দেয়। এরপর থানার ওসি এ ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করলে তারা পূণরায় আ,লীগ,অঙ্গসহযোগী সংগঠন এবং সাধারণ মানুষকে নিয়ে মানববন্ধন করে ঘটনার সাথে জড়িত পুলিশ কর্মকর্তার শাস্তির দাবি জানান। এ ঘটনা পুলিশের উধ্বতম মহল অবহিত হলে ঘটনার সাথে জড়িত পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যদের উর্ধ্বতম কর্তৃপক্ষ বদলি করে দেন। তাদের বলদি আর্দেশ ঠেকাতে আমাকে (কমিশনারকে) হত্যার হুমকী দিয়ে পত্র প্রেরণ এবং কাফনের কাপড় পাঠিয়েছে বলে তিনি সাংবাদিক সম্মেলনে উল্লেখ করেন।