এসির দর দাম

প্রকাশ:| সোমবার, ১৬ মে , ২০১৬ সময় ১০:৪৯ অপরাহ্ণ

এসি এর বাজার গরম হয়ে উঠে মূলত এই গরমেই। আর তাই গরমের এই বাদভাঙ্গা তীব্র দাবদাহ হতে মুক্তি পেতে এসি এর বিকল্প নেই।  এসি কেবল ক্রয় করলেইতো হবে না খেয়াল রাখতে হবে আরো অনেক কিছু। তেমনি এসি ক্রয় করতে কিছু গুরুত্বপূর্ণ দিক যা একজন ক্রেতার জানার একান্তই প্রয়োজন। সর্বপ্রথম নিজ বাড়ীর ধরণ থেকে আরম্ভ করে সেটিং পর্যন্ত আরো অনেক কিছুই খেয়াল রাখতে হয় একজন ক্রেতার।

নিম্নে এই গুরুত্বপূর্ণ দিকগুলো উল্লেখসহ ব্যাখ্যা করা হলোঃ-

 

১. উইন্ডো এসিঃ-

নিজ ঘরে একটি সুন্দর জানালা থাকলে বসাতে পারেন একটি উইন্ডো এসি।  উইন্ডো এসি-এর মূলত কাজ হচ্ছে ভেতরের গরম হাওয়া বাইরে বের করে দেয়া। ঠিক অন্যদিকে বাইরের ঠাণ্ডা হাওয়া ঘরের ভেতরে নিয়ে আসতে সাহায্য করা। তবে যদি একটা মাত্র ঘরের জন্য এসি চান তাহলে উইন্ডো এয়ার কন্ডিশনার সঠিক অপশন। টাকা পয়সার সাশ্রয় হবে। আবার ঘরের কুলিং সিস্টেমও অক্ষুণ্ণ থাকবে।

২. পোর্টেবল এসি:-

যদি পোর্টেবল এসি কেনার প্রতি আগ্রহী হোন তাহলে অবশ্যই অ্যাডজাস্টেবল হোসটি দেখে কেনা উচিত। কারণ এক্ষেত্রে ডুয়েল হোসের এসির চেয়ে সিঙ্গেল হোসের এসি ঘর ঠাণ্ডা রাখে বেশি। যদি  বসার ঘর বাড়ির অন্যান্য ঘরের চেয়ে বড়ো হয় এক্ষেত্রে ঘরের আয়তন তুলনামূলকভাবে অনেকটাই বড়ো হয়ে থাকে এসব ক্ষেত্রে স্প্লিট এসি বা ডাক্টলেস এসি ব্যবহার করাটাই বেশী শ্রেয়।

৩. আধুনিক এসিকে প্রাধান্য দেয়াঃ-

 

বর্তামানে চিরাচরিত এয়ার কন্ডিশনারকে পেছনে ফেলে বাজারে আসছে অনেক স্মার্ট অপশন সম্বলিত সব অত্যাধুনিক এসি। এর ফলে পাওয়া যাবে অনেক অত্যাধুনিক সব অপশন। ফলে নানা ভালো ব্র্যান্ডের স্মার্টফোন দ্বারা নিয়ন্ত্রন করা যাবে এসির নানা অপশন। তবে এক্ষেত্রে কেবল ওয়াইফাই কানেকশনটি থাকতে হবে। অপশনটি অপারেট করার জয় কেবল নিজ স্মার্টফোনে একটি অ্যাপ ইন্সটল করে নিতে হবে। সেই অ্যাপ চালু থাকলে আপনার এসি আপনা থেকেই বুঝে যাবে কখন আপনি ঘরে আছেন, কখনই বা নেই। সেই মতোই হবে ঘর ঠাণ্ডা রাখার ব্যবস্থা।

 

৪. এসির দরদাম সম্পর্কে পূর্বধারণা থাকাঃ-

নিজ পছন্দের এসির দরদাম সম্পর্কে পূর্বধারনা থাকলে অনেক সুবিধা হয়ে থাকে। পূর্বধারনার ফলে বাজেটের চেয়ে অনেক বেশি খরচ হওয়ার অনেকাংশ কমে যায়। অন্যদিকে এসি ক্রয় করার পূর্বেই অনেক ভালো করে নিজের ঘরের আয়তন সম্পর্কে সঠিক ধারণা থাকা প্রয়োজন। ঘরের আয়তন অনুযায়ি এসির সেটাপ করলে ঘর অনেকাংশ  ঠান্ডা থাকে।

 

৫. কেমন বাজেট হওয়া উচিত-

নিজ পছন্দের ব্র্যান্ডের এসি ক্রয় করলে অনেকাংশ লাভবান হওয়া যায়। কোন ব্র্যান্ডের এসি কিনছেন, তার উপরে অনেকটাই নির্ভর করছে এসির দাম। দেড় টনের উইন্ডো এসি ক্রয়ের জন্য সর্বনিম্ন বাজেট হওয়া উচিত ৩৫ হাজার টাকার মতো৷ অন্যদিকে এক টনের উইন্ডো এসির জন্য ২৫ হাজার টাকার মতো খরচ পড়বে। অন্যদিক স্প্লিট এসির দাম তুলনামূলক ভাবে অন্যান্যগুলোর চেয়ে একটু বেশি। ঘর যদি সত্যিই বড়ো হয় তাহলে অন্তত: দেড় টনের এয়ার কন্ডিশনার না কিনলে তেমন লাভ হবে না। দেড় টনের স্প্লিট এসির জন্য বাজেট রাখুন ৪৫ হাজার টাকা।তবে ৩৫ হাজারেও দেড় টনের এসি পাবেন। ১ টন পোর্টেবল এয়ার কন্ডিশনারের দাম পড়বে ৩০ থেকে ৩২ হাজার টাকার মতো। ওয়াইফাই এনাবেলড এসির দাম স্বাভাবিক ভাবেই একটু বেশি। এক টনের ওয়াইফাই এনাবেলড এসির দাম পড়ে যাবে চল্লিশ হাজার টাকার কিছু বেশি।

 

৬. ছোট ঘরের জন্য কেমন এসি প্রয়োজনঃ-

মিনি কুলার ছোট ঘরকে ঠাণ্ডা রাখার জন্য যথেষ্ট বলা চলে। এক্ষেত্রে বাজেট রাখুন তিন হাজার টাকার মতো। অন্যদিকে যেই এয়ার কন্ডিশনার বা এয়ার কুলারই ক্রয় করুন না কেন, অবশ্যই ভালো করে দেখে নিন যে এয়ার কুলারটি সক্ষমতা কেমন বিদ্যুতের সাশ্রয়ের ক্ষেত্রে।

উপরিউক্ত পয়েন্টগুলো যেকোন সময় এসি ক্রয়ের ক্ষেত্রে মনে রাখলে আশা করা যায় নিজ পছন্দের এসিটি পেয়ে যাবেন।

সিঙ্গার ১ টন দাম পড়বে ৪৪,০০০ টাকা যা পূর্বমূল্য ছিলো ৪৮,০০০ টাকা। সিঙ্গার ১.৫ টন প্রিমিয়াম সিলভার দাম পড়বে ৫৭,৭০০ টাকা। এছাড়াও মডেলে ভেদে রয়েছে দামের তারতম্য। সিঙ্গার ১টন প্রিমিয়াম গোল্ড লো ভোল্টেজ যা এখন ৪,০০০ টাকা ছাড়ে দিচ্ছে মাত্র ৪৭০০০ টাকায়।

অন্যদিকে হায়ের ১টন এয়ার কন্ডিশনারের দাম পড়বে ৪৫,৫৬০ টাকা ও ১.৫ টন কিনতে দাম পড়বে ৫৭,২৮০ টাকা এবং ২টন কিনতে দাম পড়বে ৬৫,০০০ টাকা।

বাজারের সবচেয়ে কমদামে এয়ার কন্ডিশনার দিচ্ছে ওয়ালটন। বিভিন্ন মডেল ও কালার ভেদে রয়েছে দামের তারতম্য। ০.৭৫টন এয়ার কন্ডিশনারের ১,৫৭৫ টাকা কমিয়ে এখন কিনতে দাম পড়বে ২৯,৯২৫ টাকা ও ১টনের দাম ১,৭০০ টাকা কমিয়ে এখন কিনতে লাগবে ৩২,০০০ টাকা এবং ২টন কিনতে দাম পড়বে ৫১,৮৭০ টাকা যা পূর্বের মূল্য ছিলো ৫৪,৬০০ টাকা।

কমার্শিয়াল অফিসের জন্য কিনতে পারেন এলজি যা কোন শব্দ ছাড়াই আপনার অফিসের সিলিংয়ের সাথে মানিয়ে নিবে। দাম পড়বে ১,৩৬,১৬০ টাকা ও ১,৯০,৭৮৫ টাকা।

অন্যদিকে জেনারেল ১টন এয়ার কন্ডিশনারের দাম পড়বে ৬২,০০০ টাকা ও ১.৫ টন এয়ার কন্ডিশনারের দাম পড়বে ৭৮,০০০ টাকা।

হাইসেনস ১টন এয়ার কন্ডিশনারের দাম পড়বে ৪১,৮১০ টাকা।
এলজি ১টন এয়ার কন্ডিশনারের দাম পড়বে ৫৩,২১০ টাকা ও ১.৫ টনের দাম পড়বে ৭০,৩১৫ টাকা যা পূর্বে ছিলো ৭১,৫৬৫ টাকা এবং ২ টন এয়ার কন্ডিশনারের দাম পড়বে ৮০,৪২০ টাকা যা পূর্বে ছিলো ৮৪,২১৫ টাকা।

এছাড়া সিঙ্গার থেকে এয়ার কুলার কিনতে পারেন। যা ভিডিওকনের দাম শুরু ৭,৫০০ টাকা থেকে। এই গরমে আপনাকে শীতল রাখতে এয়ার কুলারও কার্যকরি হবে। তবে দেশীয় ব্রান্ড ওয়ালটন থেকেও কিনতে পারেন যার দাম শুরু ৫,৫৩০ টাকা থেকে।

তো আর দেরি কেন? বাজারে যান আর সাধ্যের মধ্যে পছন্দের একটা এয়ার কন্ডিশনার কিনে আনুনন আর সবাই থাকুন শীতল


আরোও সংবাদ