এমন উইকেট দেখেননি মুশফিক-হাথুরুসিংহে!

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ৯ জুন , ২০১৫ সময় ০৭:৪৫ অপরাহ্ণ

WKT+1ফতুল্লার উইকেট সবসময়ই বাংলাদেশের সবচেয়ে ভালো ব্যাটিং উইকেটগুলোর অন্যতম। ঘরোয়া ক্রিকেটেও দারুণ রান প্রসবা উইকেট। কিন্তু ভারতের বিপক্ষে টেস্টের আগের দিন সেই উইকেট দেখেই চমকে গেছেন বাংলাদেশ কোচ চন্দিকা হাথুরুসিংহে ও অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। দুজনের জন্যই এই উইকেট নতুন!

ক্রিকেটার ও কোচ হিসেবে প্রায় আড়াই যুগ ক্রিকেটের সঙ্গে সম্পৃক্ত হাথুরুসিংহে। মঙ্গলবার অনুশীলন শেষে সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ কোচের দাবি, এমন উইকেট আগে কখনো দেখেননি। ‌

“এই উইকেট বোঝা কঠিন, কারণ আগে কখনো এই ধরণের উইকেট আমি দেখিনি। উইকেটের উপরিভাগে অনেক কাটা ঘাস। এটা অস্বাভাবিক। কারণ সাধারণত উইকেটে অনেক ঘাস থাকে কিংবা একোবারেই থাকে না। এ ধরণের কাটা ঘাস আগে দেখিনি। আমার জন্য এই অভিজ্ঞতা নতুন। হয়তো অন্য আরও অনেকের জন্যও নতুন। বুঝতে পারছি না উইকেটের আচরণ কেমন হবে।”

২০১১ বিশ্বকাপে কানাডার কোচ হয়ে বাংলাদেশে এসেছিলেন হাথুরুসিংহে। তখন ইংল্যান্ডের সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচটি কানাডা খেলেছিল ফতুল্লাতে। বাংলাদেশের কোচ হিসেবে এটিই ফতুল্লায় তার প্রথম ম্যাচ। তিনি চমকে যেতেই পারেন। কিন্তু এই মাঠে অনেক অনেক ম্যাচ খেলেছেন যিনি, সেই মুশফিকুর রহিমও চিনতে পারছেন না ফতুল্লার উইকেটকে।

“এভাবে কাটা ঘাস উপরিভাগে দেওয়া হয়ত ওয়ানডে বা টি-টোয়েন্টিতে অনেক সময় দেখা যায়। টেস্টে কখনও দেখিনি। ৫ দিন এটা কতটা টিকবে বা কতটা প্রভাব ফেলবে, এর ধারণা নেই। আমার জন্যও এটা নতুন।”
এ ধরনের উইকেট ব্যাটিং ও স্পিনের জন্য সহায়ক হবে বলে মনে করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

“আপাতত যা মনে হচ্ছে, প্রথম ২ দিন ব্যাটিং-সহায়ক হবে উইকেট। স্পিন তো প্রথম দিন থেকেই কার্যকরী হবে, পরে আরও বেশি হবে। আমার ধারণা ম্যাচটা হবে স্পিনার আর ব্যাটসম্যানদের।”

মঙ্গলবার দুপুরে ভারতীয় দল যখন অনুশীলনে আসে, ফতুল্লার উইকেট তখন ঢাকা। সংবাদ সম্মেলনে আসার পথে ফতুল্লার ২২ গজকে এক নজর দেখে আসলেন বিরাট কোহলি। ভারত অধিনায়ক কিন্তু ততটা চমকাননি উইকেট দেখে।

“মাত্র এক নজরই দেখলাম উইকেট। খুব অস্বাভাবিক মনে হয়নি। ঘাস নেই (বোনা ঘাস), শক্ত উইকেট। পরে আরও ভালভাবে দেখে বোঝার চেষ্টা করব উইকেট কতটা ভাঙবে বা আদৌ ভাঙবে কিনা।”

‘রহস্যময়’ এই ২২ গজেই বুধবার একমাত্র টেস্টে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও ভারত।

মাঠের কিউরেটর শফিউল আলম ক’দিন আগে সংবাদকর্মীদের বলেছিলেন, ‌‌প্রচণ্ড গরমে উইকেট ভেঙে যাওয়ার একটা শঙ্কা আছে। উইকেট জমাট রাখতেই কাটা ঘাস রাখা হতে পারে।


আরোও সংবাদ