‘‘এপ্রিল’র মধ্যে খালের তলা পর্যন্ত মাটি-আবর্জনা অপসারণ করতে হবে’’

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১১ মার্চ , ২০১৬ সময় ০৮:০৮ অপরাহ্ণ

চাক্তাই খালআসছে বর্ষায় নগরীর জলাবদ্ধতা হ্রাস ও সহনশীল পর্য্যায়ে আনায়নের লক্ষে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন খাল-নালার মাটি ও আবর্জনা উত্তোলন করছে। এ কর্মসূচি’র আওতায় নগরীর চাক্তাই খালের মাটি ও আবর্জনা উত্তোলন ও অপসারনে ৫টি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। প্রায় ২ (দুই) কোটি টাকার বিনিময়ে মাটি ও আবর্জনা উত্তোলন ও অপসারন কাজ চলছে। ১৮ হাজার ৫শত ফুট লম্বা এবং ৩৫ ফুট প্রসস্থ এ চাক্তাই খালের পুরো অংশের তলা পর্যন্ত মাটি ও আবর্জনা উত্তোলনের লক্ষ্যমাত্রা ঠিকা করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীদের দেয়া তথ্যমতে আসন্ন বর্ষার পূর্বেই খাল খনন সমাপ্ত হতে পারে। তবে জোয়ার ভাটার সাথে মাটি ও আবর্জনা উত্তোলন কাজটিকে সমন্বয় করতে হচ্ছে বলে জানা যায়। ১১ মার্চ শুক্রবার সকালে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন চাক্তাই খালের বিভিন্ন অংশ পায়ে হেঁটে সরেজিমনে পরিদর্শন করেন। চাক্তাই খালের অনেকাংশ অবৈধ দখল ও স্থাপনা থাকায় খাল পরিদর্শনেও প্রতিবন্ধকতা দেখা যায়। পরিদর্শন কালে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, এপ্রিল মাসের মধ্যে খালের তলা পর্যন্ত মাটি ও আবর্জনা অপসারন করতে হবে। খালের উপর দিয়ে পায়ে হাঁটার উপযোগী তিনি দেখতে চান। মেয়র ঠিকাদারদের বলেন, প্রতিকূলতা মোকাবেলা করেই খালের কাজ শতভাগ করতে হবে। সময় ক্ষেপন করে নাগরিক দূর্ভোগ সৃষ্টি করা যাবে না। জনবল ও ইকুইপমেন্ট বাড়িয়ে ধার্য্য সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করতে হবে। সিটি মেয়র খাল পরিদর্শনের সময় এলাকাবাসীর সাথেও কথা বলেন। তিনি বলেন, খালকে ডাষ্টবিন বানিয়ে জলাবদ্ধতা সৃষ্টির জন্য যারা যারা দায়ি হবেন তাদের কেউই রেহাই পাবেন না। খাল ভরাট করে চট্টগ্রামবাসীকে কষ্ট দেয়ার অধিকার কারোর নেই। তিনি সাবধানতা উচ্চারন করে বলেন, এখন থেকে খালে বা নালায় কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান কোন ধরনের আবর্জনা, মাটি বা অন্য কিছু ফেলে স্বাভাবিক পানি চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করলে পরিবেশ দূষনের দায়ে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের বিদ্যমান আইনের প্রয়োগ করবে। এক্ষেত্রে জেল জরিমানা সহ কঠোর শাস্তি অপেক্ষা করছে। মেয়র খালের দু’পারের নাগরিকদের এ বিষয়ে সজাগ ও সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেন এবং যার যার অবৈধ স্থাপনা স্ব স্ব উদ্যোগে সরিয়ে নেয়ার জন্য সাফ জানিয়ে দেন। প্রসঙ্গক্রমে জনাব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, নাগরিক সেবা শতভাগ নগরবাসী’র দোড়গোড়ায় পৌছে দেয়া হবে। নগরকে সকল নাগরিকের জন্য একটি নিরাপদ, পরিবেশ বান্ধব নগরে উন্নিত করা হবে। তিনি তার লক্ষ্য বাস্তবায়নে দলমত নির্বিশেষে সকল নাগরিকের সার্বিক সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন। সিটি মেয়রের চাক্তাই খাল পরিদর্শন কালে প্যানেল মেয়র নিছার উদ্দিন আহমদ মঞ্জু, নোমান আল মাহমুদ, মো. ইসা, তিমির বরন চৌধুরী, বখতিয়ার উদ্দিন খান, মঞ্জুর হোসেন, মোরশেদ আলম, প্রধান প্রকৌশলী লে.কর্নেল মহিউদ্দিন আহমদ, তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আনোয়ার হোছাইন, নির্বাহী প্রকৌশলী মো. কামরুল ইসলাম, পুল কর্মকর্তা সুদীপ বসাক, সহকারী প্রকৌশলী, উপসহকারী প্রকৌশলী সহ দায়িত্বপ্রাপ্ত পিডি ও সংশ্লিষ্ট এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।