ধর্ষণের দায়ে, গ্রেপ্তার ৫

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৩০ জুলাই , ২০১৫ সময় ০৯:৩৭ অপরাহ্ণ

ধর্ষণচট্টগ্রাম নগরীর কোতয়ালি থানার বিআরটিসি ফলমন্ডিতে ২৮ বছর বয়সী এক ভাসমান নারী ফল বিক্রেতা গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। এঘটনায় পুলিশ সেখান থেকে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে। যাদের মধ্যে দুইজন ধর্ষণের কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন।

গ্রেপ্তার অভিযুক্ত পাঁচ ধর্ষক হলেন, মামুন মাতব্বর (২০), ইসমাইল (১৮) ইকবাল হোসেন (২০), জাহাঙ্গীর আলম (২৮) এবং মোহাম্মদ হাসান (১৮)।

কোতয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নেজাম উদ্দিন জানান, মঙ্গলবার গভীর রাতে ২৮ বছর বয়সী ভাসমান ফল বিক্রেতা ওই নারী ফল সংগ্রহ করে ফলমন্ডিতে একটি দোকানে বসে চা খাচ্ছিলেন। এসময় সেখানকার ২জন ভ্যানগাড়ী চালক ও ফলমন্ডির ৩ শ্রমিক পূর্ব পরিচয়ের সুবাদে তাকে ফল দেয়ার কথা বলে একটি দোকানের ভেতরে নিয়ে যায়। এরপর তাকে ফলমন্ডিতে একটি নির্জন স্থানে নিয়ে গিয়ে ভোর পর্যন্ত পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

২৮ বছর বয়সী ধর্ষণের শিকার নারীটি বিবাহিত এবং বিআরটিসি’র ফলমন্ডিতে আড়ত থেকে ফেলে দেয়া ফল সংগ্রহ করে বায়েজিদে বস্তি এলাকায় নিয়ে বিক্রি করেন। ঘটনার পর ওই নারী সুস্থ হয়ে বুধবার সকালে কোতয়ালি থানায় গিয়ে এ বিষয়ে একটি অভিযোগ করেন। এরপর পুলিশ দ্রুত ওই নারীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করান। তিনি বর্তমানে সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এরপর পরই এঘটনায় বুধবার সকাল থেকে বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) ভোর পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই নারীর দায়ের করা মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়। এদের মধ্যে ইকবাল ও হাসান আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। বাকিদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানানো হয়েছে। আগামী রোববার তাদের রিমান্ড শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে বলে জানান পরিদর্শক নেজাম উদ্দিন।


আরোও সংবাদ