একে একে চলে গেলেন ছয় শিশুই

প্রকাশ:| বুধবার, ১৫ জুলাই , ২০১৫ সময় ০৭:১১ অপরাহ্ণ

ছয় শিশুবিধাতার লীলা বুঝা বড় দায়। সিলেটের প্রবাসীর স্ত্রী হোছনা বেগমের জন্ম নেওয়া ছয় শিশু পৃথিবী ছেড়ে চলে গেছেন। হোছনা বেগমের অন্য তিন শিশুকেও বাঁচানো গেল না। আজ বুধবার ভোরের আলো ছড়িয়ে পড়ার আগেই অন্য তিন শিশু বিদায় নিল পৃথিবী থেকে।

গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ছয় শিশুর জন্ম দেন হোছনা বেগম (২৬)। অস্ত্রোপচার ছাড়াই স্বাভাবিকভাবে ছয় শিশুর জন্ম দেন তিনি। শিশুদের মধ্যে চারটি মেয়ে ও দুটি ছেলে।

কিন্তু ওজন কম থাকায় ও শ্বাসকষ্ট হওয়ায় জন্মের আট ঘণ্টা পরই তিন শিশু মারা যায়। অন্যদের ইনকিউবেটরের মতো বিশেষ ব্যবস্থায় রাখা হয়েছিল। কিন্তু মঙ্গলবার রাত ৯টা থেকে বুধবার ভোর ৬ টার মধ্যে অন্য তিন শিশুও মারা যায়।

সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক আবদুস সালাম জানিয়েছেন, বেঁচে থাকা অন্য তিন শিশুর ওজনও স্বাভাবিকের চেয়ে কম ছিল। এসব শিশুর শ্বাসকষ্টও ছিল। সব ব্যবস্থা নেওয়া সত্ত্বেও শিশুদের বাঁচানো সম্ভব হয়নি।

গতকাল বুধবার তিন শিশুর মৃত্যুর কারণ হিসেবে হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক মো. আবদুল হাই শ্বাসকষ্ট ও কম ওজনকে দায়ী করেছিলেন।

হোছনা বেগম সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার রাজাগঞ্জের বাসিন্দা। হোছনার স্বামী জামাল উদ্দিন দুবাইতে থাকেন। তাঁদের তিন বছর বয়সী একটি মেয়ে আছে।