একেকটি রং যেন একেকটি স্বপ্ন

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৫ এপ্রিল , ২০১৮ সময় ১০:২৫ অপরাহ্ণ

মেটাল, অ্যাক্রেলিক ও রঙের ছোঁয়ার ছবিগুলো ‘অনুরণন’ তুলছে দর্শক হৃদয়ে। দ্বিমাত্রিক একেকটি ছবি যেন একেকটি গল্প। একেকটি রং যেন একেকটি স্বপ্ন। সব মিলে ৩২টি শিল্পকর্ম।

চারুকলার সাবেক ছয় শিক্ষার্থীর প্রদর্শনী এটি। এর মধ্যে শামসুল আলম সোহেল ও এসএম আজিজুল কদিরের চারটি করে, মাসুদা আহমেদ সাথীর পাঁচটি ও জিয়াউদ্দিন চৌধুরী, মোহাম্মদ মনসুর কাজী এবং মোহাম্মদ মাসুদ কবিরের ছয়টি করে শিল্পকর্ম প্রদর্শিত হচ্ছে। রয়েছে ফেরদৌস আরা চন্দ্রার ‘মূর্ছনা’ শিরোনামে একটি চিত্রকর্মও।

বৃহস্পতিবার (৫ এপ্রিল) সন্ধ্যায় এমএম আলী সড়কের চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমির শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন গ্যালারিতে শুরু হলো অনুরণনের দ্বিতীয় প্রদর্শনী।

প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় জাদুঘরের পরিচালক অধ্যাপক ড. ভূঁইয়া ইকবাল, চবির ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. ইমরান হোসেন, চবি সিন্ডিকেট সদস্য ড. সুলতান আহমদ, ফিন্যান্স অ্যান্ড মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক এসএম নছরুল কদির, চারুকলা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ড. ফয়জুল আজিম এবং ইনস্টিটিউটটির অধ্যাপক সৈয়দ সাইফুল কবির। প্রদর্শনী ঘুরে দেখেন একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় সভাপতি লেখক-সাংবাদিক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা শাহরিয়ার কবিরসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

শামসুল আলম সোহেল বলেন, ‘বন্ধুরা সবাই চারুকলার ছাত্র হলেও একেকজন একেকটি বিষয়ে পড়াশোনা করেছে। সুযোগ পেলেই কাজের ফাঁকে ফিরে যাই নিজ জগতে। অনুরণন আমাদের শিল্পচর্চাকে ধরে রাখার একটি প্রচেষ্টা। সামনে হয়তো আমরা বড় কিছু করবো।’

এসএম আজিজুল কদির বলেন, ‘আমাদের এবারের প্রদর্শনী প্রিয় সহপাঠী ফেরদৌস আরা চন্দ্রার স্মরণে।’

তিনি বলেন, ‘অনেক চিত্রশিল্পী আছেন খুব ভালো আঁকেন। কিন্তু প্রদর্শনীর সুযোগ পাচ্ছেন না। অনুরণনের এ প্লাটফর্মে আমরা তাদের জন্য সুযোগ করে দিতে চাই। গত মাসে প্রতিবেশী দেশ নেপালে আমাদের এ ছবিগুলো নিয়ে একটি প্রদর্শনীর আয়োজন করেছিলাম। সেখানে ভালো সাড়া পেয়েছি আমরা।’

প্রদর্শনী চলবে শনিবার (৭ এপ্রিল) পর্যন্ত। বিকেল চারটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।