একসঙ্গে ১৩ হাজার মানুষের নাচ, বিশ্ব রেকর্ড

প্রকাশ:| রবিবার, ১৯ জুলাই , ২০১৫ সময় ০৩:৫৯ অপরাহ্ণ

একসঙ্গে ১৩ হাজার মানুষের নাচ, বিশ্ব রেকর্ডবিশ্বজুড়ে প্রতিনিয়তই হচ্ছে কত রকমের রেকর্ড। তেমনি এক নতুন রেকর্ড করেছে ফিলিপাইনের মান্দালয়ং শহরবাসী। এক স্থানে জুম্বা নাচে সবচেয়ে বেশি প্রায় ১৩ হাজার মানুষের অংশগ্রহণের রেকর্ড গড়েছে তারা।

জুম্বা হলো নাচ ও শারীরিক কসরতের সমন্বয়। হিপ-হপ, সোকা, সাম্বা, সালসা, মেরেনজু মাম্বা ইত্যাদি নাচ এর অন্তর্ভুক্ত। তেমনটি জুম্বায় আছে স্কোয়াট, লাঞ্জসহ বিভিন্ন ব্যায়াম। গত শতাব্দীর ৯০-এর দশকে এটি বানিছিলেন কলম্বিয়ার নৃত্যশিল্পী ও কোরিওগ্রাফার আলবার্তো ‘বেতো’পেরেজ। জুম্বা বর্তমানে জুম্বা ফিটনেনের ট্রেডমার্ককৃত। বিশ্বের ১৮০টি দেশের প্রায় দুই লাখ স্থানে জুম্বা শেখানো হয়।

আজ রোববার সকালে ফিলিপাইনের মান্দালয়ং শহরের রাস্তায় আয়োজিত জুম্বা নাচের ক্লাসে অংশ নেয় ১২ হাজার ৯৭৫ জন মানুষ। এর মাধ্যমে আগের এক স্থানে জুম্বা ক্লাসে সর্বোচ্চ আট হাজার ২৩২ জন অংশ নেয়। মজার বিষয় হলো আগের রেকর্ডটিও ছিল ফিলিপাইনেরই। গত বছর দেশটির সেবু প্রদেশের আয়োজিত জুম্বা ক্লাসে ওই সংখ্যক মানুষ অংশ নিয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়েছিল।

মান্দালয়ং শহরের মার্টিনেজ ও নুয়েভ দো পাবরেবো স্ট্রিট এবং ফাবেলা রোডে জুম্বা ক্লাস অনুষ্ঠিত হয়। সিটি মেয়র বেনহার আবালস জুনিয়রের জন্মদিন উপলক্ষে এর আয়োজন করে স্থানীয় সরকার কর্তৃপক্ষ। জুম্বা ক্লাসে অংশ নিতে অনেক শহরবাসীকে ভোর ৩টার দিকে জেগে উঠতে হয়। অংশগ্রহণকারীরা হলুদ টি-শার্ট ও কালো প্যান্ট পরেন। ক্লাস শুরুর পর শহরের ওই রাস্তাগুলো হলুদ জনসমুদ্রে পরিণত হয়। বিখ্যাত জুম্বা প্রশিক্ষক রেজিন টলেনটিনো এই আয়োজনে অংশ নেন।

আজ মান্দালয়ং শহরে জুম্বা ক্লাসের নতুন এ রেকর্ডের ঘোষণা দেন গিনেস বিশ্ব রেকর্ডের কর্মকর্তা অ্যালান পিক্সলে। পরে এক অনুষ্ঠানে তাঁর কাছ থেকে রেকর্ডের সার্টিফিকেট গ্রহণ করেন শহরের মেয়র।

মান্দালয়ং কাউন্সিলর চ্যারিস অ্যাবালোস সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এক বার্তায় ঐতিহাসিক ঘটনায় অংশ নেওয়ার জন্য শহরবাসীকে ধন্যবাদ জানান।