একনিষ্ঠতার এক অনন্য দৃষ্টান্ত কাগতিয়া মাদরাসা-আল্লামা মোমতাজী

প্রকাশ:| শনিবার, ১ মার্চ , ২০১৪ সময় ১০:১৭ অপরাহ্ণ

রাউজান প্রতিনিধিঃ ইসলামী সংগঠক ও বাংলাদেশ জমিয়তুল মোদাররেছিনের মহাসচিব আল্লামা শাব্বির আহমদ মোমতাজী বলেছেন, দ্বীনি ও যুগোপযোগী শিক্ষার জন্য আধুনিক সকল সুযোগ-সুবিধা সমৃদ্ধ কাগতিয়া কামিল মাদ্রাসার নিরিবিলি প্রাকৃতিক মনোরম পরিবেশ সহজেই যে কাউকে আকৃষ্ট করবে। যুগশ্রেষ্ঠ অলীয়ে কামেল কাগতিয়ার গাউছুল আজমের পৃষ্ঠপোষকতা ও বর্তমান অধ্যক্ষ আল্লামা ছৈয়্যদ মুহাম্মদ মুনির উল্লাহ্র কর্মদক্ষতা ও প্রাণান্তকর প্রচেষ্টায় এ মাদরাসা আধুনিক দ্বীনি শিক্ষার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। এ মাদরাসার শিক্ষার্থীরা ধর্মীয় শিক্ষার সাথে আধুনিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি শিক্ষায় সুশিক্ষিত হয়ে অন্যদের সাথে প্রতিযোগিতা করে কর্মক্ষেত্রে নিজেদের মেধা ও মননশীলতার স্বাক্ষর রাখবে। তিনি গতকাল শনিবার ঐতিহ্যবাহী কাগতিয়া কামিল এম এ মাদ্রাসার ৮২তম সালানা জলসায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন। তিনি আরও বলেন, নিভৃত পল্লীতে গড়ে উঠা এ মাদরাসা অদূর ভবিষ্যতে বিশ্ববাসীর কাছে এক মডেল হয়ে দাড়াবে। সদিচ্ছা ও দক্ষতা থাকলে গ্রামেও যে বিশ্বমানের প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা যায় কাগতিয়া মাদরাসা তারই নমূনা।
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় মাইক্রো বায়োলজি বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান ড. মনছুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সালানা জলসায় বিশেষ অতিথি ছিলেন ড. মুহাম্মদ তৌহিদ হোসেন চৌধুরী, ড. এস. এম. রফিকুল আলম, ড. মুহাম্মদ ইলিয়াছ ছিদ্দিকী, ড. এনামুল হক মোজাদ্দেদী, সাংবাদিক মহসিন চৌধুরী, মোহাম্মদ মোশারফ হোসেন, অধ্যক্ষ মোহাম্মদ সেলিম জাহাঙ্গীর, অধ্যাপক অলি আহাদ চৌধুরী, অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম।
এতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন হযরতুলহাজ্ব আল্লামা মুফতি মুহাম্মদ ইব্রাহিম হানফি, হযরতুলহাজ্ব আল্লামা মুফতি আনোয়ারুল আলম ছিদ্দিকী, হযরতুলহাজ্ব আল্লামা এমদাদুল হক মুনিরী, আল্লামা আশেকুর রহমান ও মাওলানা মুহাম্মদ সেকান্দর আলী।
এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন রাউজান প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি মীর মোহাম্মদ আসলাম, এম. বেলাল উদ্দিন, প্রদীপ শীল, বর্তমান প্রেস ক্লাব সভাপতি মোরশেদ হোসেন চৌধুরী, সাংবাদিক সাহেদুর রহমান মোরশেদ, সাধারণ সম্পাদক এস. এম. ফখরুল ইসলাম, সাংবাদিক কামাল উদ্দীন। সভাপতির বক্তব্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় মাইক্রো বায়োলজি বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান ড. মনছুর আরো বলেন, ইসলাম সর্বযুগের সর্বশ্রেষ্ঠ ধর্ম। কোরআন এবং হাদীস শরীফও সর্বযুগ ও সর্বকালের জন্য। তাই প্রাচীন ও আধুনিক সবকিছুর যথাযথ সমাধান এ দুটিতে বিদ্যমান। কিন্তু সব দ্বীনি প্রতিষ্ঠান এ বাস্তব সত্যকে জাতির সামনে উপস্থাপন করতে সক্ষম হয় না। এ ক্ষেত্রে কাগতিয়া এশাতুল উলুম কামিল এম. এ. মাদরাসা সম্পূর্ণ ব্যতিক্রম। এ মাদরাসা দ্বীনি শিক্ষার পাশাপাশি আধুনিক শিক্ষার যথার্থ পরিবেশ, একাডেমিক ও প্রশাসনিক ব্যবস্থাপনা সত্যিই যুগোপযোগী। বিজ্ঞানের এ যুগে আন্তর্জাতিকভাবে ইসলামকে বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরার জন্য এমন প্রতিষ্ঠান সময়ের দাবী। এদিকে ৮২তম সালানা জলসা উপলক্ষে অর্ধকিলোমিটার জুড়ে সাজ সাজ রব বিরাজ করছিল। ভাসমান দোকানীরা পসরা সাজিয়ে বেচাবিক্রী করতে দেখা যায় প্রতি বছরের ন্যায়। সভা উপলক্ষে বিশাল আয়তনের মাদরাসা ভবনকে সাজসজ্জিত করা হয়েছে। মাহফিলে বিভিন্ন ওলামায়ে কেরামের বয়ান শুনে অনেকে নিজের আবেগকে ধরে রাখতে পারেননি। হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে কাগতিয়া মাদরাসাসহ আশপাশের এলাকা লোকে লোকারণ্য হয়ে যায়। অনেকে মাদরাসা ফান্ডের জন্য টাকা, ধান, আলু, লবণ, ডালসহ বিভিন্ন প্রকারের জিনিসপত্র দান করেন। এ সময় দানকৃত ব্যক্তিদের জন্য আল্লাহর দরবারে তাদের দান কবুল হওয়ার জন্য ফরিয়াদ জানান মাওলানা এমদাদুল হক মুনিরী। সভা শেষে মিলাদ-কিয়াম-মুনাজাতে মাদ্রাসার উত্তোরোত্তর উন্নতি ও প্রধান পৃষ্ঠপোষক কাগতিয়ার গাউছুল আজম মাদ্দাজিল্লুহুল আলী ছাহেবের দীর্ঘায়ু কামনা করা হয়।