উদোর পিণ্ডি বুধোর ঘাড়ে চাপাতে চাইছে আ.লীগ: বিএনপি

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২০ মে , ২০১৪ সময় ০৯:২২ অপরাহ্ণ

ফেনীর ফুলগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান একরামুল হক হত্যার ঘটনা উদোরপিন্ডি বুধোর ঘাড়ে চাপানোর চেষ্টা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরমহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, দলীয় কোন্দলের কারণে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা গাড়িতে আগুন দিয়ে হত্যা করার পর উদোর পিন্ডি বুদোর ঘাড়ে চাপাতে চাইছে। তারা গত উপজেলা নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী মিনারসহ নেতা-কর্মীদের বাসায় বাসায় হামলা, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাট চালিয়েছে। আমরা এর নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। বিবৃতিতে মির্জা আলমগীর বলেন, আমরা মনে করি- অবৈধ সরকার জনসমর্থন হারিয়ে এখন পুলিশ আর দলীয় ক্যাডারদের উপর ভর করেছে। বর্তমান অবৈধ সরকারের আশ্রয়ে প্রশয়ে আওয়ামী ক্যাডাররা এখন এতটাই বেপরোয়া ও লাগামহীন যে, নারায়ণগঞ্জসহ দেশের সর্বত্র নিজেরা নিজেরা খুন খারাপীতে লিপ্ত রয়েছে। অপরদিকে এ সকল খুনোখুনির দায় বিএনপি নেতা-কর্মীদের ওপর চাপানোর অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে। তিনি বলেন, অন্তর্কোন্দলের কারনে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের হাতে ফেনীতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত ফুলগাজী উপজেলা চেয়ারম্যানকে গাড়ীতে অগ্নিসংযোগ করে হত্যা এবং তার দায়ভার বিএনপি’র ওপর চাপাতে বিএনপি নেতা-কর্মীদের ওপর হামলা চালানোর ঘটনা তারই ন্যাক্কারজনক দৃষ্টান্ত। আওয়ামী লীগ বরাবরই নিজের দ্বারা সংঘটিত অপকর্মের দায়ভার অন্যের ওপর চাপাতে পারদর্শী। বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ফুলগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান একরামুল হককে হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানান। সেই সঙ্গে আওয়ামী লীগ কর্মীদের হাতে বিএনপি নেতা-কর্মীদের বাসায় বাসায় হামলা, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের ঘটনা সংঘটনকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ারও দাবি করেন তিনি। আলাদা আরেক বিবৃতিতে শাহবাগে ছাত্রদল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সিনিয়র সহসভাপতি সাদিউল কবির নিরবের ওপর হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব।


দ্রুত নির্বাচন না দিলে দাবানল জ্বলে উঠবে-রাজশাহীতে রিজভী

রিজভীবিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী বলেছেন, গুম, খুন ও অপহরণের অভিযোগ এনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধের ডাক দিতে হবে। ধানাই-ফানাই বন্ধ করে সবার অংশগ্রহণে একটি জাতীয় নির্বাচন না দিলে সারাদেশে দাবানল জ্বলে উঠবে। আওয়ামী লীগ সরকারের বিরুদ্ধে আমরা যুদ্ধের জন্য সারা দেশে প্রস্তুত। এ যুদ্ধে জনগণকে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিচারিক আদালত স্থানান্তর ও রাষ্ট্রীয় সরকারের খুন, গুম ও অপহরণের প্রতিবাদে গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১টায় রাজশাহী নগরীর ভুবনমোহন পার্কে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির তিনি এ কথা বলেন। রিজভী বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময়ে শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাগুলো কর্পুরের মতো উড়ে গেছে, আর বেগম খালেদা জিয়ার মামলা আঠার মতো লেগে গেছে। পুলিশ ও আদালত দিয়ে মামলা আটকে রাখা হচ্ছে। সারাদেশে প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্রয়ে গুম, অপহরণ ও হত্যা চলছে অভিযোগ করে তিনি আরো বলেন, এর প্রতিবাদ করায় গুলি করা হচ্ছে। পুলিশের গুলি খেয়ে আমরা আর বসে থাকতে পারি না। এই সরকারের কবল থেকে রেহাই পেতে হলে আরেকটি লড়াই করতে হবে। রিজভী নির্বাচন কমিশনকে সরকারের গোলাম মন্তব্য করে বলেন, সিইসি কাজী রকিব উদ্দিন এখন কাজী গোলাম উদ্দিনে পরিণত হয়েছেন। সর্বশেষ অনুষ্ঠিত ১৩টি উপজেলা নির্বাচনেও আওয়ামী লীগকে জেতাতে নির্বাচন কমিশন ছিঁচকে চোরের ভূমিকা পালন করেছেন বলেও মন্তব্য করেন রিজভী। রাজশাহী মহানগর বিএনপির সভাপতি মিজানুর রহমান মিনুর সভাপতিত্বে সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, দলের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক হারুনুর রশিদ, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিটি মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু সাঈদ চাঁদ ও কাজী হেনা, মহানগর সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলন প্রমুখ। পরে একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।