উখিয়ায় যৌতুকের দাবীতে স্ত্রীকে মারধর

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১৮ অক্টোবর , ২০১৬ সময় ০৯:৩৯ অপরাহ্ণ

কায়সার হামিদ মানিক, উখিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি:
উখিয়ায় যৌতুকের দাবীতে স্ত্রীকে ঘরের দরজা বন্ধ করে বেদড়ক মারধর করে গুরুতর আহত করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় লোকজন ওই মহিলা কে পাষন্ড স্বামীর নির্যাতনের কবল থেকে উদ্ধার করে উখিয়া হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। এ ঘটনায় পুলিশ থানায় মামলা না নেওয়ায় নির্যাতিত মহিলা মোহছেনা আক্তার বাদী হয়ে কক্সবাজার বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল, আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছেন। যার মামলা নং- সিপি মামলা নং-১২৯৮/১৬ ইং। সে উপজেলার জালিয়াপালং ইউনিয়নের মোঃ শফিরবিল গ্রামের মোঃ আলমের মেয়ে । এতে মামলায় আসামী করা হয়েছে স্বামী মোঃ সেলিম ও তার ভগ্নিপতি নুরুল আলম কে। ঘটনাটি ঘটেছে, গত ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬ ইং সন্ধায়। আদালতে দায়ের করা মামলা সূত্রে জানা গেছে, নির্যাতিত মহিলা মোহছেনা আক্তারের স্বামী মোঃ সেলিম ও ভগ্নিপতি নুরুল আলম ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িয়ে তারা বাড়ীতে বসে ইয়াবা সেবন করে স্ত্রীর উপর প্রতিনিয়ত চরম অত্যাচার, নির্যাতন ও ২ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে থাকে। উল্লেখিত তরিখে পাষন্ড স্বামী মোঃ সেলিম একই কায়দায় নির্যাতন করলে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় মারাতœক জখম হয়েছে। এ ব্যাপারে কক্সবাজার বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল, আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছেন। যার মামলা নং- সিপি মামলা নং- ১২৯৮/১৬ ইং। বিজ্ঞ বিচারক মামলাটি তদন্ত পূর্বক আদালতে প্রতিবেদন পাঠানোর নির্দেশ দেন উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে। উখিয়া থানার ওসি মোঃ আবুল খায়ের আদালতের নির্দেশে থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ আবুল কালাম কে মামলাটি তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করার নিদের্শ প্রদান করেন। কিন্তু তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক আবুল কালাম মামলার আসামীদের সাথে গভীর সখ্যতা গড়ে তুলে মামলার প্রতিবেদন আদালতে পাঠাতে কালক্ষেপন করছে। উখিয়া থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ আবুল কালামের সাথে যোগাযোগ করিলে, সে বলেন আমার সাথে আসামী পক্ষের লোকজনের সাথে কোন সখ্যতা নেই এবং মামলাটি আপোষ করার জন্য উভয় পক্ষকে বলা হয়েছে।