উখিয়ার কর্মসৃজন প্রকল্পের দুর্নীতি তদন্তে দুদক

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| রবিবার, ১৮ মার্চ , ২০১৮ সময় ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ

কায়সার হামিদ মানিক, উখিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি :
হতদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচী প্রকল্পের অনিয়ম,দুর্নীতি ও সেচ্ছাসারিতার অভিযোগে উখিয়ায় থানায় ২০১৫ সালে দায়েরকৃত মামলার তদন্ত করছে চট্টগ্রামস্থ দুর্নীতি দমন কমিশনের একটি প্রতিনিধিদল। বুধবার দুপুর দেড় টার দিকে দুর্নীতি দমন কমিশন পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদ থেকে তাজনিমারখোলা ব্রিজ পর্যন্ত রাস্তা সংস্কারের কাজ তদন্ত করেন। দুর্নীতি দমন কমিশনের সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-২ এর উপ-সহকারি পরিচালক মোঃ শরীফ উদ্দিনের নেতৃত্বে ৩ সদস্যের উক্ত প্রতিনিধিদল পালংখালী ইউনিয়নের ৩টি প্রকল্প তদন্ত করবেন বলে জানা গেছে। উল্লেখ্য যে, ২০১২-১৩ অর্থ বছরে বাস্তবায়িত হতদরিদ্রদের কর্মসৃজন প্রকল্পের আওতাধীন ২০টি প্রকল্পের ৫ কোটি টাকা লুটপাট করা হয়েছে মর্মে তৎকালীন উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক শাহ জাহান সিকদার বাদী হয়ে চট্টগ্রাম দুর্নীতি দমন কমিশনের নিকট ২০১৪ সালের একটি অভিযোগ করেন। উক্ত অভিযোগের ধারাবাহিকতায় তৎকালীন দুর্নীতি দমন কমিশনের উপ-পরিচালক ও তদন্তকারী কর্মকর্তা শফিউল্লাহর নেতৃত্বে ৩ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল ওই বছরের শেষে দিকে উখিয়ার ২০টি প্রকল্পের কাজ সরেজমিন তদন্ত করে দুর্নীতির অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় ২০১৫ সালের ১২ মে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শফিউল আলম শাকিব সহ ৯জনের বিরুদ্ধে উখিয়া থানায় ৭টি মামলা দায়ের করেন। প্রতিটি মামলায় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শাকিবকে আসামী করা হয়। দুর্নীতি দমন কমিশনের উপ-সহকারি পরিচালক মোঃ শরীফ উদ্দিন জানান, উক্ত মামলা গুলো বর্তমান দুদক বাদী হয়ে পরিচালনা করছে। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার পালংখালী ইউনিয়নের তাজনিমারখোলা রাস্তাটি পরিমাপ করে দেখা হয়েছে। তিনি বলেন, উক্ত প্রকল্পের সভাপতি, সাবেক ইউপি সদস্য শেখ হাবিবুর রহমানের উপস্থিতিতে তার প্রকল্প পরিমাপ করে দেখা হয়েছে। এসময় উপস্থিত পালংখালী ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য ও প্রকল্প সভাপতি শেখ হাবিবুর রহমান জানান, তার প্রকল্পে দৃশ্যমান কাজ হয়েছে। তবে তাকে কেন আসামী করা হয়েছে তা বোধগম্য নয়। তদন্তকালে উপস্থিত ছিলেন, দুর্নীতি দমন কমিশনের এসি(৫১৬) মোঃ ফারুক উদ্দিন, উখিয়া উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল আলিম লিটন, উখিয়া উপজেলার সাবেক প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শফিউল আলম শাকিব, পালংখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী।