ঈদে রেমিট্যান্সের পরিমাণ খুব বেশি বাড়েনি

প্রকাশ:| বুধবার, ৭ আগস্ট , ২০১৩ সময় ০৪:৩৪ অপরাহ্ণ

চলতি অর্থ বছরের (২০১৩-১৪) প্রথম মাসে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ১২৩ কোটি ডলারের রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। সাধারণত ঈদেরdolar আগের রেমিট্যান্স অন্যান্য সময়ের তুলনায় অনেক বেশি বেড়ে যায়। সাম্প্রতিক সময় দেশের চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতায় বিনিয়োগে মন্দা ও ডলারের অব্যাহত দরপতনের কারণেই ঈদের আগেও রেমিট্যান্সের পরিমাণ খুব বেশি বাড়েনি বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রানীতি বিভাগের হালনাগাদ পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, গত অর্থ বছরে (জুলাই-জুন) প্রবাসীরা মোট এক হাজার ৪৪৬ কোটি পাঁচ লাখ মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ রেমিট্যান্স পাঠিয়েছে। অর্থাত্ প্রতিমাসে গড়ে ১২০ কোটি ডলার রেমিট্যান্স এসেছে। যদিও গত বছরের অক্টোবর মাসে অর্থ বছরের সর্বোচ্চ ১৪৫ কোটি ডলার এসেছিল। গত অর্থ বছরের জুনে রেমিট্যান্স এসেছিল ১০৫ কোটি ডলার। যা ছিল অর্থ বছরের সর্বনিম্ন। সে হিসেবে ঈদের আগের মাস অর্থাত্ গত জুলাইয়ে যে পরিমাণ রেমিট্যান্স এসেছে তা আগের মাসের তুলনায় বেশি। কিন্তু ঈদের আগে এ পরিমাণকে যথেষ্ট নয় বলে অনেকে মনে করছেন।

জুলাই মাসে আসা রেমিট্যান্সের মধ্যে ৪২ কোটি ৬৫ লাখ ডলার এসেছে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন চার বাণিজ্যিক ব্যাংক এবং এক কোটি ৩২ লাখ মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স এসেছে বিশেষায়িত দুটি ব্যাংকের মাধ্যমে। আর বেসরকারি ২৯টি বাণিজ্যিক ব্যাংকের মাধ্যমে ৭৭ কোটি ৪৮ লাখ ডলার এবং বিদেশি নয় বাণিজ্যিক ব্যাংকের মাধ্যমে রেমিট্যান্স এসেছে এক কোটি ৫৭ লাখ ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা বলছেন, টাকার বিপরীতে ডলারের চাঙ্গা ভাবের কারণে গত অর্থ বছরের প্রথম থেকেই প্রবাসীরা বেশি বেশি রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছিলেন। কিন্তু সাম্প্রতিক সময় ডলারের দাম কমে যাওয়ায় প্রবাসীদের কম পরিমাণে রেমিট্যান্স পাঠানোর প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। এছাড়া বর্তমান রাজনৈতিক অস্থিরতায় দেশে বিনিয়োগের পরিবেশ অনূকূল না থাকায় দেশে অর্থ পাঠানো কম থাকতে পারে বলে তারা মনে করছেন। এজন্য ঈদের আগেও অন্যান্য মাসের তুলনায় যে পরিমাণ রেমিট্যান্স তা কাঙ্ক্ষিত পরিমাণের চেয়ে অনেক কম।