ঈদের পর সারাদেশে কমিটি গঠন করবে জাতীয় পার্টি

প্রকাশ:| রবিবার, ২৭ জুলাই , ২০১৪ সময় ১০:২২ অপরাহ্ণ

ঈদের পর সারাদেশে কমিটি গঠন করবে জাতীয় পার্টিঈদের পর সারা দেশে সম্মেলনের মাধ্যমে জাতীয় পার্টির কমিটি গঠন করা হবে বলে জানিয়েছেন সংগঠনটির কেন্দ্রীয় মহাসচিব ও কোতোয়ালী আসনের সংসদ সদস্য জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু।

রোববার নগরীর সার্কিট হাউসে চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা শাখা নেতাকর্মীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ ঘোষণা দেন।

জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, ঈদের পরের তিন মাসকে আমরা সাংগঠনিক মাস হিসেবে নির্ধারণ করেছি। এ সময়টাতে দেশের প্রতিটি মহানগর, জেলা, উপজেলা, থানা ও ইউনিয়নে সম্মেলনের মাধ্যমে কমিটি গঠন করা হবে। সারা দেশে সংগঠনকে চাঙ্গা করার সকল উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, দেশের মানুষ আওয়ামী লীগ-বিএনপির ধ্বংসাত্মক রাজনীতিতে অতিষ্ঠ। তারা এ অবস্থা থেকে মুক্তি চায়। সারা দেশে কমিটি কমিটি গঠনের মাধ্যমে জনগণের এ প্রত্যাশা পূরণের লক্ষ্যে জাতীয় পার্টি কাজ করবে।

সভায় জাতীয় পার্টি বিরোধী দল হওয়ায় দেশে সত্যিকারের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে উল্লেখ করে বাবলু বলেন, বিগত ২৪ বছর ধরে দেশে মৌখিকভাবে গণতন্ত্র প্রচলিত ছিলো। কিন্তু গণতন্ত্রের নামে একে অপরের বিরুদ্ধে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ, সংসদ বর্জন, মারামারি, হানাহানি, হয়েছে। জাতীয় পার্টি এ ধরণের তথাকথিত গণতন্ত্রের বিপরীতে সংসদে অবস্থান সত্যিকারের বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করছে।

তিনি বলেন, বিগতসময়গুলোতে সারা দেশে সহিংসতা আপনারা দেখেছেন। এসব সহিংসতায় প্রায় ১১ হাজার কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। এ ধরণের জ্বালাও পোড়াও যদি গণতন্ত্র হয়, তবে সে গণতন্ত্রে জাতীয় পার্টি বিশ্বাস করে না।

চট্টগ্রাম মহানগর কমিটি নিয়ে সাবেক সভাপতি সোলায়মান আলম শেঠ ও নতুন কমিটির আহ্বায়ক মাহজাবীন মোরশেদের পাল্টাপাল্টি বক্তব্য ও আলোচনা-সমালোচনা চলাকালে মাহজাবীনকে সঙ্গে নিয়ে এ মতবিনিময় সভা করলেন দলের মহাসচিব। নতুন কমিটি গঠনের পরও সোলায়মান আলম শেঠ নিজেকে সভাপতি দাবি করে আসছেন।

মতবিনিময় সভায় সোলায়মান আলম শেটকে ইঙ্গিত করে মহানগর জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক মাহজাবীন মোরশেদ বলেন, অনেকে পত্রপত্রিকায় বিবৃতি দিয়ে সংগঠন নিয়ে ষড়যন্ত্রের চেষ্টা করছে। তাদের যে কোন ষড়যন্ত্র প্রতিহত করা হবে।

সভায় জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান মোরশেদ মুরাদ ইব্রাহিমসহ চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।