ঈদগাঁও বাজারবাসী অবশেষে ভোটাধিকার পাচ্ছে

প্রকাশ:| বুধবার, ১৫ মার্চ , ২০১৭ সময় ১১:৫২ অপরাহ্ণ

সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও (কক্সবাজার)প্রতিনিধি, অবশেষে ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে নেতৃত্ব নির্বাচনের সুযোগ পাচ্ছেন কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁও বাজারের ব্যবসায়ীরা। বিদ্যমান পরিষদ কর্তৃক সরাসরি নির্বাচনের মাধ্যমে ভোটের সিদ্ধান্ত নেয়ায় এ সুযোগ পাচ্ছেন বাজারবাসীরা।
সরেজমিন দেখা গেছে, বৃহত্তম বাণিজ্য কেন্দ্র ঈদগাঁও বাজারে ছোট, বড় ও মাঝারী মিলে দু’সহ¯্রাধিক দোকানপাট রয়েছে। ব্যবসায়ীদের স্বার্থ সংরক্ষণ ও বাজারবাসীর সুবিধা-অসুবিধা দেখার জন্য এতদিন নির্বাচিত কোন নেতৃত্ব ছিল না। ঈদগাঁও বাজার ব্যবসায়ী পরিচালনা পরিষদ নামে যে সংগঠনের মাধ্যমে বর্তমান বাজার শাসিত হচ্ছে তা রামু-কক্সবাজারের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমলের নির্দেশনায় গঠিত একটি আহবায়ক কমিটি। এতে ২১ জন সদস্য থাকলেও একজন মারা যাওয়ায় বর্তমান সদস্য সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২০ জনে। খোদ পরিচালনা পরিষদ অভ্যন্তরে দীর্ঘদিন যাবত সরাসরি নির্বাচনের মাধ্যমে বাজারের নেতৃত্ব নির্ধারণ করার জন্য কথাবার্তা চলে আসছিল। দেরিতে হলেও এ আহবায়ক কমিটি তাদের নেতৃত্বে বাজারবাসীকে ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ করে দিচ্ছে। এতে ভোটার ও সম্ভাব্য প্রতিদ্বন্দ্বীদের মাঝে খোশ মেজাজ লক্ষ্য করা যাচ্ছে।
জানা গেছে, আগামী এপ্রিল নাগাদ বাজারে ভোট গ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সম্প্রতি বাজার ব্যবসায়ী পরিচালনা পরিষদের বৈঠকে এধরণের সিদ্ধান্ত নেন সংশ্লিষ্টরা। এতে ২০ জনের মধ্যে ১৭ জন সদস্য উপস্থিত ছিলেন বলে কমিটির প্রভাবশালী সদস্য শওকত আলম জানিয়েছেন। তিনি বলেন, আহবায়ক কমিটির সদস্য বাজারের প্রবীণ ব্যবসায়ী আলহাজ¦ মাওলানা জসিম উল্লাহ মিয়াজীকে প্রধান করে নির্বাচনী বোর্ড গঠন করা হয়েছে। ৫ সদস্যের এ বোর্ডে অন্যদের মধ্যে রয়েছেন বিএনপি নেতা শওকত আলম, বিএনপি নেতা বজল আহমদ, আওয়ামীলীগ নেতা তারেজ আজিজ ও যুবলীগ নেতা রাজিবুল হক রিকো। ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক তারেক আজিজ জানান, খুব শীঘ্রই বোর্ড বৈঠকে সিদ্ধান্ত নিয়ে তফশীলসহ নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম শুরু করা হবে। তিনি ভোটার সংখ্যা দু’সহ¯্রাধিক হতে পারে জানিয়ে আরো বলেন, ভোটার তালিকা চূড়ান্ত করার পরই নির্বাচনী তফশীল ঘোষণা করবে গঠিত নির্বাচনী বোর্ড। উল্লেখ্য, বিগত বিএনপি শাসনামলে ঈদগাঁও বাজার ব্যবসায়ী পরিচালনা পরিষদের সর্বশেষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ঐ নির্বাচনেও প্রধান উপদেষ্টার ভূমিকায় ছিলেন আলহাজ¦ জসিম উল্লাহ মিয়াজী। সেসময় উপজেলা বিএনপি সভাপতি এম. মমতাজুল ইসলামকে হারিয়ে বাজার সভাপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন মরহুম নুরুল আমিন সওদাগর। তবে এ কমিটি সরকারী সম্পৃক্ততা না পাওয়ায় বিচার আচারসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে প্রশ্নের সম্মুখীন হয়ে একসময় অকার্যকর হয়ে যায় বলে মন্তব্য করেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।