ঈদগাঁওতে পিতাকে অপহরণ করেছে পুত্র

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৫ মে , ২০১৭ সময় ১১:১৩ অপরাহ্ণ

সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও প্রতিনিধি, কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁওতে সম্পদ আত্মসাৎ করতে বৃদ্ধ পিতাকে অপহরণ করল ছেলে। সংঘটিত ঘটনায় অপহৃতের স্ত্রী বাদী হয়ে ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বর্ণিত ইউনিয়নের মধ্যম ভোমরিয়াঘোনার মৃত লাল মোহাম্মদের পুত্র মোহাম্মদ ছৈয়দ উল্লাহ (৭৭) সাংসারিক জীবন অতিবাহিত করে আসছিল। তার ৪ মেয়ে, ২ সন্তান রয়েছে। এর মধ্যে প্রবাসে রয়েছে অপর এক ছেলে। পরিবারের সহায় সম্পত্তি নিজের আয়ত্বে নিতে জন্মদাতা পিতাকে কয়েকবার লাঞ্চিত ও করেছিল অভিযুক্ত এ ছেলে। তারই সূত্র ধরে গত ৪ মে বৃহষ্পতিবার সকালে বাড়ীর রাস্তার মাথা থেকে পুত্র শফিউল আলম ও তার স্ত্রী উম্মে সাদিয়া উর্মীর যোগসাজশে বৃদ্ধ পিতা ছৈয়দ উল্লাহকে জোর পূর্বক তুলে নিয়ে যায়। পরিবারের অন্য সদস্যরা সম্ভাব্য বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুজির পরও উদ্ধার কিংবা সন্ধান না পেয়ে অপহৃতের স্ত্রী ছলেমা খাতুন বাদী হয়ে ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে অভিযোগ দায়ের করেছে। অভিযোগটি আমলে নিয়ে একজন অফিসারকে তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছে। ঐদিন উক্ত তদন্ত কর্মকর্তা সম্ভাব্য বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়েছেন বলে জানা গেছে।
ছলেমা খাতুন জানান, তার স্বামীর নামে প্রায় ৩ কানি মত জমি-জমা রয়েছে। উক্ত জমি-জমার দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় হঠাৎ লোলুপ দৃষ্টি পড়ে ছেলে শফিউল আলমের। সে দীর্ঘদিন বাবাকে চাপ প্রয়োগ করে আসছিল জমি কেড়ে নেওয়ার জন্য। এতে ব্যর্থ হয়ে ঐদিন জন্মাদাতা পিতাকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে জমিগুলো রেজিষ্ট্রি নেওয়ার জন্য অপহরণ করে নিয়ে যায়। বৃদ্ধ পিতাকে অপহরণের ঘটনায় পরিবারের মাঝে নেমে এসেছে অজানা আতঙ্ক। উদ্বেগ উৎকন্ঠায় রয়েছে অপরাপর ছেলেমেয়েরা।
এ ব্যাপারে ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মোঃ খায়রুজ্জামানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি অভিযোগটি আমলে নিয়ে এএসআই মহিউদ্দীনকে তদন্তের নির্দেশ দেন বলে জানান। এদিকে এএসআই মহিউদ্দীন জানান, ঘটনাটি অপহরণ কিনা অন্য কিছু ঘটনাটি এখনো পরিষ্কার বুঝা যাচ্ছে না।


আরোও সংবাদ