ইসিতে হিসাব জমা দিল আ’লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টি

প্রকাশ:| বুধবার, ৩১ জুলাই , ২০১৩ সময় ০৪:২০ অপরাহ্ণ

নির্বাচন কমিশনে (ইসি) নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দেয়ার শেষ দিনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, বিরোধী দল বিএনপি, জাতীয় পার্টি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) ও বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ) নিজেদের হিসাব জমা দিয়েছে।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে দলের যুগ্মমহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল ইসিতে গিয়ে আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দেয়।

বিএনপির দেয়া তথ্য অনুযায়ী, ২০১২ সালে দলটির আয় এক কোটি ৭৯ লাখ ১২ হাজার টাকা। ব্যয় দুই কোটি ২৬ লাখ ৯৩ হাজার টাকা। ঘাটতি ব্যয় ৪৭ লাখ ৮১ হাজার টাকা।

বিএনপির আয়ের উৎস সম্পর্কে রিজভী বলেন, ‘দলীয় সদস্যদের চাঁদা, নতুন সদস্য ফি ও অনুদানের টাকা আয়ের প্রধান উৎস।’

বিএনপিতে অতিরিক্ত ব্যয় কোন খাত থেকে মেটানো হয়েছে এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘দলের ব্যাংক একাউন্টে থাকা আগের বছরের গচ্ছিত টাকা থেকে এ অতিরিক্ত ব্যয় পূরণ করা হয়েছে।’

দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আওয়ামী লীগের পক্ষে উপদপ্তর সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দেন। এসময় সহসম্পাদক হাসান কবির আরিফও ছিলেন।

মৃণাল বলেন, ‘আমরা আমাদের পুরো বছরের হিসাব জমা দিয়েছি। আওয়ামী লীগ একটি স্বচ্ছ রাজনৈতিক দল। আমরা সব কিছু স্বচ্ছতার মধ্য দিয়ে করছি।’

আওয়ামী লীগে ব্যয়ের খাত প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘প্রশাসনিক ব্যয়, কর্মচারীদের বেতন-ভাতা, বিদ্যুৎ, টেলিফোন, ডাক ও কুরিয়ার, পত্রিকা বিল, বাড়ি ভাড়া, আপ্যায়ন, পরিবহন ও দলের বিভিন্ন কর্মসূচীতে এ ব্যয় হয়েছে।’

আওয়ামী লীগে ব্যয়ের অংক প্রসঙ্গে জানতে চাইলে মৃণাল বলেন, ‘দলীয় সিদ্ধান্ত ছাড়া জানানো যাবে না।’

তবে দলীয় একটি সূত্রে জানা গেছে, আওয়ামী লীগের ২০১২ অর্থবছরে বার্ষিক আয় হয়েছে প্রায় ১০ কোটি। ব্যয় হয়েছে ৯ কোটি টাকা।

এদিকে, জাতীয় পার্টির পক্ষে প্রেসিডিয়াম সদস্য তাজুল ইসলাম চৌধুরী আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দিয়েছেন।

দলটির ২০১২ সালে বার্ষিক আয় ৪ কোটি ৮০ লাখ টাকা। ব্যয় ৪ কোটি ৯০ লাখ টাকা। দলীয় সদস্যদের চাঁদা ও অনুদান থেকে এ আয় হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

জাহিদুল হক মিলুর নেতৃত্বে বাসদ ও আব্দুল মালেক রতনের নেতৃত্বে জাসদ তাদের আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দিয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত ১৪টি দল তাদের আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দেয়। বুধবার আরো ৫টি দল জমা দিয়েছে। এ নিয়ে ৩৯টি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের মধ্যে ১৯টি দল ইসিতে তাদের আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দিলো।

আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দেয়া বাকি ১৪টি দল হলো-জামায়াতে ইসলামী, খেলাফত মজলিশ, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, বাংলাদেশ ec-logo-tm_6345_0মুসলিম লীগ, জমিয়াতে ওলামা বাংলাদেশ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি), বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ), বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি), বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি, গণফোরাম, খেলাফত মজলিস, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা) ও লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি)।

চারটি দল আগামী আগস্ট পর্যন্ত সময় চেয়ে ইসিকে চিঠি দিয়েছে। দল চারটি হলো-বিকল্প ধারা, বাংলাদেশের ওয়ার্কাস পার্টি, সাম্যবাদী দল ও জাতীয় পার্টি (জেপি)।

প্রতি বছর ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে দলের পূর্বের পঞ্জিকা বছরের হিসাব দেয়ার বিধান রয়েছে।

ইসির সিনিয়র সহকারি সচিব মেসবাহ উদ্দিন বলেন, ‘জুলাইয়ের মধ্যে নিবন্ধিত ৩৯টি রাজনৈতিক দলের আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দেয়ার কথা। বুধবার হিসাব দাখিলের শেষ দিন। তবে যেসব রাজনৈতিক দল নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে হিসাব জমা দেয়নি অথচ সময়ও নেয়নি তাদের কাছে ইসির কারণ দর্শানোর নোটিস দেয়া হবে।’

উল্লেখ্য, গত ১৩ জুলাই ৩৯টি দলের সাধারণ সম্পাদক/ মহাসচিবদের নির্ধারিত সময়ের মধ্যে হিসাব জমা দেয়ার জন্য ইসি থেকে চিঠি দেয়া হয়। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ১৯৭২-এর ৯০-এইচ (১) (সি) ধারা অনুযায়ী নিবন্ধিত কোনো দল পরপর তিন বছর বার্ষিক লেনদেনের হিসাব জমা দিতে ব্যর্থ হলে কমিশন সে দলের নিবন্ধন বাতিল করতে পারবে।


আরোও সংবাদ