ইসলামে যৌতুক প্রথার কোন স্থান নেই

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| বুধবার, ২৭ জুন , ২০১৮ সময় ১১:০৬ অপরাহ্ণ

আল্লামা নূরীর সাথে আন্জুমানে রজভীয়া নূরীয়া কাতার শাখার সভাপতির মতবিনিময়

আন্জুমানে রজভীয়া নূরীয়া বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান পীরে তরিক্বত আল্লামা মুহাম্মদ আবুল কাশেম নূরী বলেন, কল্যাণময় জীবন ব্যবস্থা ইসলাম। অকল্যাণের সঙ্গে এ জীবন ব্যবস্থার কোনো সম্পর্ক নেই। মানব সমাজকে সত্য, সুন্দর ও কল্যাণের পথে চলতে উদ্বুদ্ধ করে ইসলাম। মানুষের জন্য অবমাননাকর কোনো কিছুই ইসলামে অনুমোদনযোগ্য নয়। মনুষ্যত্বের জন্য অবমাননাকর যৌতুক প্রথার কোনো ঠাঁই ইসলামে নেই। নারী নিগ্রহের এ প্রথা ইসলামী বিধানের সম্পূর্ণ পরিপন্থী। ইসলাম নারীকে মর্যাদার আসন দিয়েছে। বিয়ের সময় স্ত্রীর কাছ থেকে যৌতুক নেওয়া নয় বরং স্ত্রীকে মোহর দেওয়ার জন্য বাধ্যবাধকতা আরোপ করেছে। পবিত্র কোরআনের সূরা নিসার ৪ নম্বর আয়াতে ইরশাদ করা হয়েছে ‘তোমরা নারীদের তাদের মোহর, স্বতঃপ্রবৃত্ত হয়ে প্রদান করবে।’ তিনি বলেন, ইসলাম শুধু যৌতুক প্রথার বিরোধীই নয় বিয়েশাদির ক্ষেত্রে সব ধরনের অপচয়ের বিপক্ষে। এ ধরণের অনৈসলামিক কার্যক্রম থেকে সমাজ ও রাষ্ট্রকে রক্ষায় তিনি সংগঠনের নেতাকর্মিদের সোচ্চার হওয়ার আহবান জানান। গতকাল ২৬ জুন মঙ্গলবার দুপুরে নাসিরাবাদ শাহী জামে মসজিদে আন্জুমানে রজভীয়া নূরীয়া কাতার শাখার সভাপতির আলহাজ্ব ফোরকান রেযার সাথে মতবিনিময়কালে তিনি উপর্যুক্ত মন্তব্য করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন রজভীয়া নূরীয়া ইসলামী সাংস্কৃতিক ফোরাম’র সভাপতি ও বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা মহানগর উত্তরের সভাপতি ছাত্রনেতা শায়ের মুহাম্মদ মাছুমুর রশীদ কাদেরী, আলহাজ্ব নূরুল ইসলাম, মুহাম্মদ আলী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ি এস.এম ইকবাল বাহার চৌধুরী, আবু গালেব মুহাম্মদ রায়হান নূরী, খুলশী ছাত্রসেনার সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা নুরুজ্জামান, মুহাম্মদ রাশেদ, মুহাম্মদ বরাত প্রমুখ।