ইসলামী ব্যাংকের ব্যবসায় উন্নয়ন সম্মেলন

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৪ জুলাই , ২০১৪ সময় ০৭:৪০ অপরাহ্ণ

ইসলামী ব্যাংকের উদ্যোগে চট্টগ্রাম উত্তর ও দক্ষিণ জোনের ব্যবসায় উন্নয়ন সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ইসলামী ব্যাংকেরশুক্রবার চট্টগ্রাম ক্লাবে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ব্যাংকের এক্সিকিউটিভ কমিটির চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার ইসকান্দার আলী খান এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

ব্যাংকের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর মোহাম্মদ আবদুল মান্নানের সভাপতিত্বে সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে ব্যাংকের এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ও এ্যাসেটস ম্যানেজমেন্ট ডিভিশনের প্রধান মো. শামসুজ্জামান, কর্পোরেট ইনভেস্টমেন্ট ডিভিশন-২ এর প্রধান মুহাম্মদ মুনিরুল মওলা, ইনভেস্টমেন্ট অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ডিভিশনের প্রধান ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ আলী, আইবিটিআরএ চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কেন্দ্রের প্রধান ড. মাহমুদ আহমদ, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জোনপ্রধান মোহাম্মদ আমীরুল ইসলাম ও চট্টগ্রাম উত্তর জোনপ্রধান মো. মোস্তাফিজুর রহমান সিদ্দিকীসহ চট্টগ্রামের ৪০টি শাখার ব্যবস্থাপক ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ইঞ্জিনিয়ার মো. ইসকান্দার আলী খান প্রধান অতিথির ভাষণে বলেন, ইসলামী ব্যাংক ক্ষুদ্র, মাঝারি ও বৃহৎ শিল্পে বিনিয়োগের পাশাপাশি পল্লী অঞ্চলের দারিদ্র্য দূর করার জন্য কাজ করছে। চট্টগ্রাম অঞ্চল থেকে আহরিত আমনতকে এ অঞ্চলে বিনিয়োগের মাধ্যমে উন্নয়ন ত্বরান্বিত করতে হবে। বিনিয়োগের নতুন নতুন ক্ষেত্র আবিষ্কার ও নতুন উদ্যোক্তা সৃষ্টির জন্য তিনি শাখা ব্যবস্থাপকদের প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি ইসলামী ব্যাংকের সেবা আরো উন্নত করার জন্য জনশক্তির যোগ্যতা ও দক্ষতা আরো বৃদ্ধির উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি ইসলামী ব্যাংকিংয়ের সকল নিয়ম কানুন যথাযথ পরিপালনের মাধ্যমে ব্যাংকের অগ্রগতিত ত্বরান্বিত করার আহ্বান জানান।

সভাপতির ভাষণে মোহাম্মদ আবদুল মান্নান বলেন, ইসলামী ব্যাংক প্রতিষ্ঠার শুরু থেকেই মানুষের কল্যাণের জন্য কাজ করে আসছে। কল্যাণ বৃদ্ধির জন্য ব্যাংকের আমানত ও বিনিয়োগের ক্ষেত্রে মানুষের প্রয়োজনকে প্রাধান্য দেয়া হয়। বিনিয়োগ বহুমুখীকরণের মাধ্যমে ব্যাংক সার্বিক অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য কাজ করছে।

তিনি বলেন, ইসলামী ব্যাংকের কর্মীদের সম্ভাবনাকে কাজে লাগানোর জন্য শাখা ব্যবস্থাপকদের আরো আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে। গ্রাহকদের মাঝে ইসলামী ব্যাংকিংয়ের ধারণা প্রদান ও ইসলামী ব্যাংকিংয়ের ব্যাপক প্রচারের উপর তিনি গুরুত্বারোপ করেন।

তিনি সময়ের সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করার মাধ্যমে সার্বিক উন্নয়ন ত্বরান্বিত করার জন্য ব্যবস্থাপকদের প্রতি আহ্বান জানান।