ভারতের জেলে বন্দি জীবিত ইলিয়াস আলী!

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১৩ আগস্ট , ২০১৩ সময় ১১:৫৬ অপরাহ্ণ

বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এম ইলিয়াস আলী এখানো জীবিত আছেন বলে দাবি করেছেন তার ছোট ভাই আসকির আলী। ইলিয়াস আলীতিনি আরো দাবি করেন, তার ভাই ইলিয়াস আলী কলকাতার দমদমের কাছাকাছি কোনো এক কারাগারে বন্দি আছেন।
বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার চ্যানেল আই-লন্ডনের স্ট্রেইট ডায়ালগের অনুষ্ঠানের লাইভ প্রোগ্রামে ইলিয়াস আলীর ছোট ভাই অত্যন্ত দৃঢ়তার সঙ্গে এ দাবি করেন। আসকির আলী লাইভ প্রোগ্রামের মাধ্যমে এ রকম দৃঢ়তার সঙ্গে দাবি এই প্রথম এবং এ নিয়ে প্রবাসী জনগণের মাঝে ব্যাপক আগ্রহ ও সাড়া ফেলেছে।
আসকির আলী জানান, তাদের কাছে বিভিন্ন সূত্র থেকে বিভিন্নভাবে যেসব তথ্য এসেছে, তাতে তাদের দৃঢ় বিশ্বাস ইলিয়াস আলী ভারতের দমদমের কাছাকাছি কোনো এক কারাগারে বন্দি অবস্থায় আছেন, যেমন করে কোলকাতায় সুখরঞ্জন বালী আছেন বলে সংবাদ মাধ্যমে খবর এসেছে।
এদিকে নিখোঁজ সুখরঞ্জন বালী ভারতে একটি কারাগারে বন্দি রয়েছেন বলে সংবাদ মাধ্যমে প্রচারিত হওয়ার পর থেকেই বিএনপি নেতাকর্মীদের ধারণা আরো দৃঢ় হয়েছে, একইভাবে ইলিয়াস আলীকে ভারতে গুম করে রাখা হয়েছে। এ নিয়ে বিভিন্ন সংবাদপত্রে খবর বের হয়েছে এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতেও এ নিয়ে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।
উল্লেখ্য, ২০১২ সালের ১৭ এপ্রিল রাজধানীর গুলশান এলাকা থেকে গুম হন সাবেক সংসদ সদস্য ও বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এম ইলিয়াস আলী।
এদিকে এম ইলিয়াস আলী নিখোঁজ হওয়ার পর তার মোবাইল থেকে বারবার বিভিন্ন ব্যক্তির ফোনে ফোন আসাকে কেন্দ্র করেও সিলেটব্যাপী চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
অনেকেই মনে করেন ইলিয়াস আলীকে যারা গুম করেছে, তারা এসব ফোন কলের মাধ্যমে জানান দিচ্ছে যে, তিনি বেঁচে আছেন। কোনো বিশেষ বাহিনী ইলিয়াস আলীকে গুম করলে তার ফোন সচল থাকত না। তাকে অনভিজ্ঞ কেউ গুম করেছে এটি বোঝানোর কৌশল হিসেবে ইলিয়াস আলীর ফোন থেকে ইচ্ছাকৃতভাবেই এসব কল করা হতে পারে।
বিশ্বস্ত সূত্র মতে_ ইলিয়াস আলী জীবিত আছেন এমন ধারণা তার পরিবারের সদস্যরা পেয়েছেন সরকারের বিশেষ একটি বাহিনীর কাছ থেকেই। এ ধারণার প্রেক্ষিতেই ইলিয়াস আলীর ভাই আসকির আলী ও স্ত্রী তাহসিনা রুশদির লুনা ইলিয়াস আলীকে উদ্ধারের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এ বিষয়ে তাহসিনা রুশদির লুনার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।
তবে তিনি মনে করেন, ইলিয়াস আলী এখনো জীবিত আছেন। আল্লাহর ওপর ভরসা রেখে তিনি বলেন, নিশ্চয়ই ইলিয়াস আলী সুস্থ শরীরে ফিরে আসবেন। এজন্য তিনি সরকারের ও জনগণের সহযোগিতা কামনা করেন। এ পর্যন্ত ইলিয়াস আলীর ফোন থেকে যেসব ফোনে কল এসেছে সেসব মোবাইল বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কাছে জমা দেয়া হয়েছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গ্রামীণফোনের একজন সিস্টেম ইঞ্জিনিয়ার বলেন, সরকারের কোনো প্রভাবশালী মহল চাইলে এসব তথ্য রেকর্ড মুছে ফেলতে পারে। আবার ভালো উদ্দেশ্য থাকলে এসব তথ্যের ভিত্তিতে ফোনের অবস্থান নির্ণয় করে ফোন ব্যবহারকারীকে আটক করা সম্ভব। তবে ফোনের এসব তথ্য মুছে ফেলা হয়েছে কিনা জানা যায়নি। এ বিষয়ে র‌্যাব ৯ এর মিডিয়া কর্মকর্তা মাওলা বলেন, এটা তথ্যপ্রযুক্তির বিষয়_ এতে আমাদের কিছুই করার নেই।


আরোও সংবাদ