ইন্দোনেশিয়ার পূর্ব জাভা দ্বীপে একটি সুপ্ত আগ্নেয়গিরি থেকে আকস্মিক অগ্নুৎপাত

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি , ২০১৪ সময় ০৭:২৬ অপরাহ্ণ

ইন্দোনেশিয়ার পূর্ব জাভা দ্বীপে একটি সুপ্ত আগ্নেয়গিরি থেকে আকস্মিক অগ্নুৎপাতেইন্দোনেশিয়ার পূর্ব জাভা দ্বীপে একটি সুপ্ত আগ্নেয়গিরি থেকে আকস্মিক অগ্নুৎপাতের ঘটনায় হাজার হাজার মানুষ বাড়িঘর ছেড়ে নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিচ্ছেন। কয়েকটি শহর, শহরতলি ও ৩৬টি গ্রামের প্রায় ২ লাখ মানুষকে নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নেয়ার অনুরোধ জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। মাউন্ট কেলুড নামের ওই আগ্নেয়গিরির জ্বালামুখ থেকে সুরাবায়া শহরসহ আশপাশের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে লাভা, পাথর ও ছাই ছড়িয়ে পড়ে। ধূসর ছাইয়ের চাদরে ঢেকে যায় বহু এলাকা। কয়েকটি শহরতলি ১ দশমিক ৬ ইঞ্চি বা ৪ সেন্টিমিটার পর্যন্ত ছাইয়ের আস্তরণে ঢেকে গেছে। সুরাবায়া অঞ্চলের তিনটি প্রধান বিমানবন্দর সুরাবায়া, সোলো ও ইয়োগিয়াকার্তা বন্ধ ঘোষণা করতে বাধ্য হয় কর্তৃপক্ষ। বিপুল পরিমাণ ছাইভস্মের কারণে বিমান ওঠানামায় সমস্যা ও বিমানের ইঞ্জিন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। কর্মকর্তারা ওই আগ্নেয়গিরির চারপাশের ১০ কিলোমিটার পর্যন্ত অক্রান্ত অঞ্চলসমূহে সতর্কতা জারি করেছেন। ২ লাখ বাসিন্দাকে নিরাপদ আশ্রয়ে যাওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে। এরই মধ্যে হাজার হাজার মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়েছেন। কোন কোন রিপোর্টে বলা হচ্ছে ২ লাখ মানুষ এরই মধ্যে বাড়িঘর ছেড়েছেন। এর আগে গ্রাম ছেড়ে যাওয়া বেশ কিছু মানুষ বাড়িতে ফিরে তাদের কাপড়চোপড় ও মূল্যবান সামগ্রী নিতে গেলে, তাদের ফিরিয়ে দেয় কর্তৃপক্ষ। দেশটির জাতীয় দুর্যোগ প্রশমন সংস্থার মুখপাত্র সুতোপো পুরয়ো নুগ্রোহো জানিয়েছেন, আগ্নেয়গিরিটি থেকে নির্গত লাভা, ছাইভস্ম ও নুড়ি ২০০ কিলোমিটার বা ১২৪ মাইল দূর পর্যন্ত পৌঁছতে পারে।