ইডিইউ-এসিসিএ চুক্তি

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ৫ আগস্ট , ২০১৪ সময় ০৬:৩০ অপরাহ্ণ

শিক্ষার্থীদের দক্ষতার মান বাড়াতে চট্টগ্রামের ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির (ইডিইউ) সঙ্গে চুক্তি সাক্ষর করেছেন দ্য অসোসিয়েশন অব চার্টাড সার্টিফাইড একাউন্টস (এসিসিএ) এর বাংলাদেশের কর্মকর্তারা।

ইডিইউ-এসিসিএ চুক্তিমঙ্গলবার সকালে ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির প্রবর্তক সেন্টারে এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

চুক্তি অনুযায়ী এসিসিএ কর্তৃপক্ষ ইডিইউর শিক্ষার্থীদের তাদের কোর্স গ্রহণে সব ধরনের সুবিধা প্রদান করবে। একই সঙ্গে এ বিষয়ে আয়োজিত নানা ধরনের সেমিনার, সিম্পোজিয়াম ও ওয়ার্কশপে ইডিইউর শিক্ষার্থীরা অংশ গ্রহনের সুযোগ পাবে।

‘মেমোরেনডাম অব আন্ডারস্টেন্ডিং’ শীর্ষক এ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ইডিইউর পক্ষে উপাচার্য অধ্যাপক মোহাম্মদ সিকান্দার খান এবং এসিসিএ বাংলাদেশের পক্ষে প্রতিষ্ঠানের প্রধান মহুয়া রশীদ স্বাক্ষর করেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার শাফায়েত চৌধুরী, এসিসিএ’র ইউনিভার্সিটি রিলেশনশিপ শাখার অ্যাসিসটেন্ট ম্যানেজার রেহেনা সুলতানা শাম্মী প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে মহুয়া রশীদ বলেন, ‘ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করার সুযোগ পেয়ে আমরা আনন্দিত ও গর্বিত। এসিসিএ বর্তমান বিশ্বে তরুন প্রজন্মের কাছে জনপ্রিয় একটি কোর্স হিসেবে পরিচিত হয়ে ওঠেছে। বিশেষ করে ফাইন্যান্স, একাউন্টিং ও ম্যানেজমেন্টসহ ব্যবসায় প্রশাসনের সকল শাখার শিক্ষার্থীরা এই কোর্সে দক্ষতা অর্জন করে চাকরির বাজারে নিজেদের যোগ্যতার প্রমাণ দিচ্ছে। আমরা আশা করবো ইস্ট ডেল্টার ছাত্র-ছাত্রীদের ক্যারিয়ার গঠনে এসিসিএ বড় ভূমিকা রাখবে।’

ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষ জানায়, কোর্স গ্রহনে প্রথম বারের মতো ২০ জন শিক্ষার্থীর সব ধরনের রেজিস্ট্রেশন ব্যয় বহন করবে তারা। এর ফলে যারা এসিসিএ কোর্সটি সফলতার সঙ্গে শেষ করতে পারবেন তারা চাকরির বাজার কিংবা ক্যারিয়ার গঠনে বাড়তি সুবিধা পাবেন বলে আশাবাদ কর্তৃপক্ষের।

ইডিইউ রেজিস্ট্রার শাফায়েত চৌধুরী বলেন, ‘চট্টগ্রামে প্রথমবারের মতো কোন ইউনিভার্সিটির সঙ্গে এ ধরনের চুক্তি স্বাক্ষর হলো। মেধার মান উন্নয়নে এই ধরনের চুক্তি ছাত্র-ছাত্রীদের অনেক বেশি উৎসাহিত করবে।’