ইটভাটার কারণে দেশের উর্বর জমি নষ্ট হচ্ছে : অর্থমন্ত্রী

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১০ জুন , ২০১৪ সময় ০৯:১৩ অপরাহ্ণ

মঙ্গলবার রাজধানীতে এক সেমিনারে ইটভাটা বন্ধ করে দেয়ার পক্ষে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের মতামতের পরিপ্রেক্ষিতে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, “ইটভাটার কারণে দেশের উর্বর জমি নষ্ট হচ্ছে। এ জন্য সময় নির্দিষ্ট করে দিতে পারি। বিষয়টি খুব জরুরি। এর পক্ষে জনমত তৈরি করতে হবে।”

বিদ্যুৎ খাত দ্রুতগতিতে এগিয়ে গেছে উল্লেক করে অর্থমন্ত্রী বলেন, “তবে বেশ কিছু প্রতিবন্ধকতাও আছে। এখন উৎপাদনক্ষমতা ১০ হাজারের বেশি। কিন্তু আমরা সরবরাহ করতে পারি মাত্র সাত হাজার মেগাওয়াট। এই পার্থক্য কমাতে হবে। ট্রান্সমিশন ক্ষমতা বাড়তে হবে।”

সেমিনারের বিশেষ অতিথি বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ ইটভাটা বন্ধ করে দেয়ার পক্ষে মত দিয়ে বলেন, “ইটভাটাগুলো আমাদের উর্বর মাটি ধ্বংস করছে। পৃথিবীর কোথাও এখন ইট ব্যবহার হচ্ছে না। সেখানে সিমেন্ট ও বালির তৈরি অলোক লক ব্যবহার করা হচ্ছে। আমাদের অফুরন্ত বালি রয়েছে। আমরা সেদিকে যেতে পারি। এতে রডের ব্যবহারও কমবে।”

নসরুল হামিদ তার নিজ এলাকা কেরানীগঞ্জে আট শর বেশি ইটভাটা রয়েছে উল্লেখ করে বলেন, “এর প্রভাবে সেখানে কোনো ফলের গাছ জন্মাচ্ছে না।”

প্রতিমন্ত্রী বলেন, “গ্যাসের মিটারিং হলে অবৈধ সংযোগ বন্ধ হবে। চুরি বন্ধ হবে। এখন প্রায় ২০০ কিলোমিটার অবৈধ লাইন রয়েছে। মিটার সংযোগ দিতে গেলে অর্থের প্রয়োজন। এদিকে অর্থ মন্ত্রণালয়ের নজর দেয়া দরকার।”