ইছহাক মিয়ার নাগরিক শোক সভার প্রস্তুতি সভা

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১১ আগস্ট , ২০১৭ সময় ০৫:১০ অপরাহ্ণ

বরণ্য রাজনীতিবিদ, সাবেক গণ পরিষদ ও সংসদ সদস্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ট রাজনৈতিক সহচর, মোহাম্মদ ইছহাক মিয়ার নাগরিক শোক সভা আয়োজনে এক প্রস্তুতি সভা শুক্রবার সকালে নগরীর দেওয়ানবাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয়ে বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ ও মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব শফর আলী’র সভাপতিত্বে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট চট্টগ্রাম জেলার সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত নাগরিক শোক সভার প্রস্তুতি সভায় অংশগ্রহন করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ তথ্য বিভাগের সাবেক ডীন বরণ্য ইতিহাসবিদ প্রফেসর ড. গাজী সালেহ উদ্দিন বলেন, চট্টগ্রামের সর্বজনমান্য দলমত নির্বিশেষে সকলের প্রিয় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, সুধী ও সাংস্কৃতিক জগতের কর্মীবৃন্দের অতি আপনজন, এদেশের একজন দূরদর্শী জ্ঞানী, রাজনীতিবিদ, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ ইছহাক মিয়া গত ২৪ জুলাই সোমবার চিরনিদ্রায় নিদ্রিত হলেন। তিনি ছিলেন সকলের ইছহাক ভাই। রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে ভিন্ন দলের হলেও তার মোহনীয় আন্তরিকতা ও আচারণের জন্য ভিন্ন মতের রাজণৈতিক কর্মীদের কাছেও তিনি হয়ে উঠেছিলেন শ্রদ্ধেয়। তাঁর মতো পরমত সহিষ্ণু উদার রাজনীতিবিদ এদেশে বিরল। তার মৃত্যুর মধ্যে দিয়ে জাতি দেশের প্রতি নিবেদিত একজন সৎ ও প্রজ্ঞাবান রাজনীতিবিদকে হারাল। তিনি আরো বলেন, দেশপ্রিয় মোহাম্মদ ইছহাক মিয়া ছিলেন এদেশের রাজনীতি ইতিহাসের একজন প্রত্যক্ষ অভিযাত্রী। নিজের জীবনের প্রতিটি দিনের কর্মের মধ্য দিয়ে আমাদের রাজনীতির উত্থান পতনের মুহুর্তগুলোকে অনুভব করেছেন। এই সকল ঘটনা প্রবাহের সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত করে রেখে রাজনীতিকে কল্যাণের পথে নিয়ে যাবার প্রচেষ্টায় ব্রতী হয়েছিলেন। তিনি ছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ট সহচর। এদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের তার ভূমিকা ইতিহাসের পাতায় স্মরণীয় ও অনুসরণীয় ইতিহাস হয়ে থাকবে। তিনি ছিলেন এদেশের সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনের অগ্রসারীর পথিকৃৎ। প্রস্তুতি সভায় অংশগ্রহণ করে বক্তব্য রাখেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম জেলা ইউনিট কমান্ডার. বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ সাহাব উদ্দিন, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এড. মুজিবুল হক, মুক্তিযোদ্ধা হাজী আবদুস সালাম, জাতীয় শ্রমিক লীগ চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি বখতিয়ার উদ্দিন খান, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক সদস্য আবদুল মান্নান ফেরদৌস, চসিক কাউন্সিলর ও নগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী আঞ্জুমান আরা বেগম আনজু, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি অনুপ বিশ্বাস, নগর যুবলীগের সদস্য সাখাওয়াত হোসেন সাকু, নঈম উদ্দিন খান, নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা জসিম উদ্দিন মিঠুন, চট্টগ্রাম আইন কলেজের সাবেক সভাপতি এডভোকেট মহিউল ইসলাম চৌধুরী, সাবেক ভি.পি এড. নজরুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য আরিফ মঈনুদ্দিন, এড. মোহাম্মদ শাহজাহান, সংস্কৃতিকর্মী কবি সজল দাশ, দিলীপ সেন গুপ্ত, মো: সাহাব উদ্দিন, এনামুল হাসান, ওসমান জাহাঙ্গীর, কিশোর হাবিবুর রহমান, মো: আবদুর রহমান, পিপলু দাশ প্রমুখ। প্রস্তুতি সভায় সকলের সর্বসম্মতিক্রমে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ.জ.ম নাছির উদ্দিন কে চেয়ারম্যান, বন্দর পতেঙ্গা আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য এম এ লতিফকে সদস্য সচিব এবং জাতীয় শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক আলহাজ্ব শফর আলীকে কার্যকরী চেয়ারম্যান, নগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য শেখ মাহমুদ ইছহাককে যুগ্ম সদস্য সচিব ও কেন্দ্র্রীয় যুবলীগের সাবেক সদস্য আবদুল মান্নান ফেরদৌসকে প্রধান সমন্বয়কারী করে ৩০১ সদস্য বিশিষ্ট মোহাম্মদ ইছহাক মিয়া নাগরিক শোক সভা পরিষদ গঠন করা হয়।