ইউপি নির্বাচন: রাঙ্গামাটিতে লড়াই হবে ত্রিমুখী

প্রকাশ:| বুধবার, ১ জুন , ২০১৬ সময় ০৯:৪৭ অপরাহ্ণ

ত্রিমুখী লড়াইরাঙামাটি জেলায় ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে লড়াই হবে আওয়ামী লীগ, বিএনপি এবং আঞ্চলিক দলের মধ্যে ত্রিমুখী। চেয়ারম্যান পদে কেবল জেলার কাউখালী উপজেলার ফটিকছড়ি ইউনিয়নে আঞ্চলিক দল ইউপিডিএফ সমর্থনপুষ্ট স্বতন্ত্র প্রার্থী ধন কুমার চাকমা বিনাপ্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হলেও সবকটি ইউনিয়নে প্রায় শ’খানেক সদস্য বিনাপ্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। সরেজমিন বিভিন্ন মহলের সঙ্গে কথা বলে চিত্রটি উঠে আসে।

দেখা গেছে, শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় ব্যস্ত জেলার ৪৮টি ইউপির চেয়ারম্যান প্রার্থী। রাত দিন ব্যস্ত সময় পার করছেন তারা। হাজির হচ্ছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। ভোটের জন্য ধরণা দিচ্ছেন ভোটারদের হাতে পায়ে। মুখে নানা প্রতিশ্রুতির ফুলঝুড়ি। যোগ্য ও পছন্দের প্রার্থীকে জেতাতে শেষ হিসাব মেলাচ্ছেন ভোটার ও পর্যবেক্ষক মহলও।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নাজিম উদ্দিন জানিয়েছেন, রাঙামাটি পার্বত্য জেলার ১০ উপজেলার মোট ৪৯ ইউনিয়নের মধ্যে ষষ্ঠ ধাপে ৪ জুন ভোট হবে ৪৮টিতে। কাপ্তাই উপজেলার চন্দ্রঘোনায় সীমানা সংক্রান্ত জটিলতার কারণে নির্বাচন স্থগিত রেখেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এসব ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন মোট ১৪৯ প্রার্থী। তাদের মধ্যে বিনাপ্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হয়েছেন একজন। এছাড়া সাধারণ ৭৪ এবং সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে ২৪ জন সদস্য বিনাপ্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন স্বতন্ত্র ৮২, আওয়ামী লীগ ৪১, বিএনপি ২০, জাতীয় পার্টি (লাঙ্গল) ৪ এবং ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশের (হাতপাখা) ২ জন।

জেলা নির্বাচন অফিস জানায়, জেলার ৪ জুনের ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন- কাউখালী উপজেলার বেতবুনিয়ায় আ’লীগ ১, বিএনপি ১, স্বতন্ত্র ১ ফটিকছড়িতে বিনাপ্রতিদ্বন্ধিতায় ধন কুমার চাকমা (স্বতন্ত্র) নির্বাচিত, ঘাগড়ায় আ’লীগ ১, বিএনপি ১, স্বতন্ত্র ২, কমলপতিতে আ’ লীগ ১, বিএনপি ১, জুরাছড়ি উপজেলার বনযোগীছড়ায় ৩ (স্বতন্ত্র), দুমদুম্যাতে ৩ (স্বতন্ত্র), জুরাছড়ি সদরে আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ২, মৈদংয়ে আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ২, বিলাইছড়িতে সদরে আ’লীগ ১, বিএনপি ১, স্বতন্ত্র ১, ফারুয়ায় আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ১, ক্যাংরাছড়িতে আ’লীগ ১ আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ১, লংগদুর আটারকছড়ায় আ’লীগ ১, বিএনপি ১, স্বতন্ত্র ২, ভাসান্যাদমে আ’লীগ ১, বিএনপি ১, জাপা ১, ইসলামি আন্দোলন ১, স্বতন্ত্র ২ বগাচতরে আ’লীগ ১, বিএনপি ১, স্বতন্ত্র ১ গুলশাখালীতে আ’লীগ ১, বিএনপি ১, জাপা ১, স্বতন্ত্র ২ কালাপাকুজ্যাতে আ’লীগ ১, বিএনপি ১, জাপা ১ লংগদু সদরে আ’লীগ ১, বিএনপি ১, স্বতন্ত্র ২ মাইনিমূখে আ’লীগ ১, বিএনপি ১, স্বতন্ত্র ১ রাজস্থলীর বাঙ্গালহালিয়ায় আ’লীগ ১, বিএনপি ১, ইসলামি আন্দোলন ১, স্বতন্ত্র ২ ঘিলাছড়িতে আ’লীগ ১, বিএনপি ১, স্বতন্ত্র ১ গাইন্দ্যায় আ’লীগ ১, বিএনপি ১, স্বতন্ত্র ১ বরকলের আইমাছড়ায় আ’লীগ ১, বিএনপি ১, স্বতন্ত্র ২ বড়হরিণায় আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ২ বরকল সদরে আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ২ ভূষনছড়ায় আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ১ সুবলংয়ে আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ১ নানিয়ারচরের বুড়িঘাটে আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ৩, ঘিলাছড়িতে স্বতন্ত্র ৩, নানিয়ারচর সদরে আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ২ সাবেংক্ষ্যংয়ে আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ২ বাঘাইছড়ির সদরে আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ১ বঙ্গলতলীতে স্বতন্ত্র ৩, সারোয়াতলীতে স্বতন্ত্র ২, খেদারমারায় আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ১ মারিশ্যায় আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ২ রুপকারীতে আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ৫ সাজেকে আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ৪ আমতলীতে আ’লীগ ১, বিএনপি ২, জাপা ১, স্বতন্ত্র ২ রাঙামাটি সদরের বন্দুকভাঙ্গায় আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ১ বালুখালীতে আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ১ জীবতলীতে আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ১ কুতুকছড়িতে স্বতন্ত্র ৪, মগবানে আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ১ সাপছড়িতে আ’লীগ ১, স্বতন্ত্র ১ এবং কাপ্তাই উপজেলার চিৎমরমে আ’লীগ ১, বিএনপি ১ কাপ্তাই সদরে আ’রীগ ১, বিএনপি ১ রাইখালীতে আ’লীগ ১, বিএনপি ১, স্বতন্ত্র ১ ও ওয়াগ্গাতে আ’লীগ ১, বিএনপি, স্বতন্ত্র ৩।

এদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের দাপটে কোনঠাসা আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ জাতীয় দলের প্রার্থীরা। স্বতন্ত্র প্রার্থীদের পক্ষে স্থানীয় রাজনৈতিক দল জেএসএস এবং ইউপিডিএফের সমর্থন থাকায় নির্বাচনী মাঠে তাদের প্রভাব বেশি। এতে প্রচারণায় পিছিয়ে জাতীয় দলের প্রার্থীরা। জেলার ৪৮টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ, বিএনপি এবং আঞ্চলিক দলের প্রার্থীদের মধ্যে ত্রিমুখী লড়াই হলেও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জয়লাভের সম্ভাবনা অধিক রয়েছে বলে স্পষ্ট হয়ে উঠছে ভোটার ও পর্যবেক্ষকদের তথ্যমতে। এ অবস্থায় আসন্ন ইউপি নির্বাচনে রাঙ্গামাটি জেলায় পিছু হটছে আওয়ামী লীগ। তাদের অভিযোগ আঞ্চলিক দলের অবৈধ অস্ত্রের হুমকিতে এ জেলায় ইউপি নির্বাচনের সুষ্ঠু কোনো পরিবেশ নেই। এ কারণে নির্বাচন বর্জনের হুমকি দিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মো. মুছা মাতব্বর।

নির্বাচনী মাঠ ঘুরে দেখা যায়, নির্বাচনে জেতার জন্য শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থীরা। তারা দিনরাত ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ধরণা দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতির ফুলঝড়ি নিয়ে। লংগদু উপজেলার গুলশাখালী ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান আবদুর রহিম বলেন, তিনি এ পর্যন্ত তিনবার নির্বাচিত হয়েছেন। এলাকার উন্নয়ন ও জনগণের সেবায় আত্মনিবেদিত থাকার কারণে এলাকাবাসী বারবার বিপুল ভোটে নির্বাচিত করে আসছেন তাকে। এবার জনগণের অনুরোধে ও সমর্থনে প্রার্থী হয়েছেন তিনি। তিনি গত মেয়াদে তার ইউনিয়নে একটি কলেজ, দুটি উচ্চবিদ্যালয় এবং একটি কিন্ডারগার্টেন স্কুল স্থাপনসহ সর্বক্ষেত্রে বহু উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করেছেন বলে জানান আবদুর রহিম। আবদুর রহিমের মতো নানা প্রতিশ্রুতিসহ নিজের গুনকীর্তন জাহির করে ব্যাপক প্রচারণায় ব্যস্ত অন্য ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থীরাও।

এদিকে জেলা নির্বাচন অফিস জানায়, ৪ জুন অনুষ্ঠেয় রাঙামাটি জেলার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠানের লক্ষে সব ধরনের প্রস্তুতি শেষ। এ জন্য নেয়া হয়েছে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা। ২ জুন সকাল থেকে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পাঠানো হবে নির্বাচনী কর্মকর্তা, কর্মচারীসহ সরঞ্জামাদি। পাশাপাশি কেন্দ্রে কেন্দ্রে অবস্থান নেবে মোতায়েন করা নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা। নির্বাচনী কাজে যাতায়াতের জন্য মোট ৫৩টি কেন্দ্রে হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হবে। কেন্দ্রগুলোর মধ্যে রয়েছে বরকল উপজেলায় ১৫, জুরাছড়িতে ২০, বিলাইছড়িতে ১০ এবং বাঘাইছড়িতে ৮টি। যোগাযোগ দুর্গমতাসহ পানি পথে কাপ্তাই লেকের পানি শুকিয়ে যাওয়ায় ওইসব কেন্দ্রে হেলিকপ্টারের সাহায্যে নির্বাচনী কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সরঞ্জামাদি আনা-নেয়া করতে হবে বলে জানান জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নাজিম উদ্দিন।

তিনি বলেন, ৪৮ ইউপিতে ৪৪৮ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। প্রায় সবগুলো কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ। ইসির নির্দেশে ওইসব কেন্দ্রে সুষ্ঠু, অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানে সর্বোচ্চ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার থাকবে। নির্বাচনের আগের দুইদিন এবং পরের দুইদিন পর্যন্ত প্রতিটি কেন্দ্রে অতিরিক্ত নিরাপত্তাবাহিনী মোতায়েন থাকবে। ৪৮ ইউনিয়নে এবার মোট ভোটার রয়েছেন ৩ লাখ ২৩ হাজার ৮৭০। তন্মধ্যে পুরুষ ১ লাখ ৭০ হাজার ২৬৭ এবং মহিলা ১ লাখ ৫৩ হাজার ৬০৩ জন।

রাঙামাটি জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজি মুছা মাতব্বর সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন,আ’লীগ নির্বাচনে যাবে না প্রশাসনের দেওয়া প্রতিশ্রোতিতে তা প্রত্যাহার করেছেন। তিনি আরো বলেন, প্রশাসন নির্বাচন সুষ্ঠু হবে বলে জেলা আ’লীগকে আশ্বাস্ত করেছেন।