ইউএসটিসিতে উপাচার্য নিয়োগের দাবিতে ভাংচুর চালিয়েছে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৭ নভেম্বর , ২০১৩ সময় ০৯:৩৩ অপরাহ্ণ

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামে (ইউএসটিসি) ভাংচুর চালিয়েছে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা।ustc

বৃহস্পতিবার দুপুরে চট্টগ্রামের রেলওয়ে কলোনিতে বিশ্ববিদ্যালয়টির বিভিন্ন অনুষদে ভাংচুরের পাশাপাশি চেয়ার-টেবিলেও আগুন দেয় তারা।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিকালে অনির্দিষ্টকালের জন্য ইউএসটিসি বন্ধ ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, দীর্ঘদিন ধরে উপাচার্যের পদ শূন্য থাকলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালনা পরিষদ নতুন উপাচার্য নিয়োগ দিচ্ছে না।

বিবিএ শেষ সেমিস্টারের শিক্ষার্থী শহীদুল ইসলাম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “উপাচার্য ডা. নূরুল ইসলাম মারা যাওয়ার পর থেকে আমরা চ্যান্সেলর কর্তৃক উপাচার্য নিয়োগের জন্য আন্দোলন করে আসছি।”

শহীদুলের অভিযোগ, বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদ জনসেবা ফাউণ্ডেশনের চেয়ারম্যান আহমেদ ইফতেখার ইসলামকে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের জন্য অনুরোধ করে কোনো কাজ হচ্ছে না।

তিনি বলেন, “এজন্য গত ২ নভেম্বর থেকে আমরা পুনরায় আন্দোলন শুরু করে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত আলটিমেটাম দিই। কিন্তু তিনি বৈঠক নিয়ে কালক্ষেপণ করছেন।”

চ্যান্সেলর কর্তৃক উপাচার্য নিয়োগের দাবির পাশাপাশি উপ-উপাচার্য, ট্রেজারার, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগে সহকারী, সহযোগী ও অধ্যাপক নিয়োগের দাবিও রয়েছে শিক্ষার্থীদের।

এসব দাবিতে শিক্ষার্থীরা দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে এলেও বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ তা উপেক্ষা করছে বলে অভিযোগ করেন শিক্ষার্থীরা।

ইউএসটিসির রেজিস্ট্রার শামস-উদ-দোহা বলেন, “শিক্ষার্থীদের দাবির বিষয়টি আমরা জনসেবা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যানকে জানিয়েছি। শুক্রবার ঢাকায় এ নিয়ে পরিচালনা পর্ষদের বৈঠক আছে।

“বর্তমান পরিস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।”

এর আগে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে গত ২৫ সেপ্টেম্বর অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্যাম্পাস বন্ধ ঘোষণার পর গত ২৫ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেয়া হয়।