ইউএসটিসিতে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পেশাজীবী পরিষদের মতবিনিময়

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২৪ জুন , ২০১৪ সময় ০৪:৫৪ অপরাহ্ণ

নগরীর বেসরকারী চট্টগ্রাম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষর্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ নেতৃবৃন্দের এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

একইদিনে এছাড়াও চার ঘণ্টার কর্মবিরতি পালনের পাশাপাশি আন্দোলনকারীরা ইউএসটিসি পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান জনসেবা ফাউন্ডেশনের সদস্য সচিব ডা. নীনা ইসলামকে প্রায় এক ঘণ্টা অবরূদ্ধ করে রাখে বলে জানা গেছে।

ইউএসটিসি সূত্র জানায়, মঙ্গলবার সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মাওলানা ভাসানী অডিটোরিয়ামে আন্দোলনকারী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি ডা. এ এইচ এম ইছাহক চৌধুরীর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভা শুরু হয়।

সভায় আন্দোলনকারীরা বলেন, অলাভজনক ও সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে ইউএসটিসি গড়ে উঠলেও এ প্রতিষ্ঠানের স্বপ্নদ্রষ্টা ডা. নুরুল ইসলামের উত্তরসুরীরা বিশ্ববিদ্যালয়টিকে পারিবারিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পরিণত করেছে। অনুগত ও নতজানু অবৈধ পর্ষদ গঠনের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়কে পরিচালনা করা হচ্ছে।

তারা বলেন, বছরের পর বছর শিক্ষা ব্যবসার মাধ্যমে কিছু ব্যক্তি নিজেদের আখের গোচালেও শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের কোন সুযোগ সুবিধার কথা চিন্তা করেনি। কর্মরতদের জন্য কোনা চাকুরি বিধিমালা নেই, শিক্ষার্থীদের জন্য পর্যাপ্ত ক্লাস, হলরুমের ব্যবস্থা করা হয়নি। অবিলম্বে শিক্ষক-চিকিৎসক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের সকল দাবি মেনে নিতে হবে।

অনুষ্ঠানে পেশাজীবী পরিষদের সভাপতি ডা. এ কিউ এম সিরাজুল ইসলাম বলেন, ইউএসটিসি কারো পারিবারিক সম্পত্তি নয়। সরকার ও জনগণের অর্থে এ বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। আন্দোলনকারীদের যৌক্তিক দাবি মেনে নিয়ে ঐতিহ্যবাহী এ প্রতিষ্ঠানকে সচল করার উদ্যোগ নিতে হবে।

ইউএসটিসি’র চিকিৎসক আবু সাদাত মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন এর সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন বিএমএ চট্টগ্রাম শাখার কোষাধ্যক্ষ ডা. আরিফুল আমিন, বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালের মহা-পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অব) ডা. শওকত আলী, মেডিসিন ফ্যাকাল্টির ডিন প্রফেসর ডা. মোকাদ্দেস আক্তার বেগম, সার্জারি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. বদিউল আলম, ফরেনসিক মেডিসিনের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক মাহমুদুল হক চৌধুরী, সহযোগী অধ্যাপক ডা. এ বি এম মোহাম্মদ আলী, অধ্যাপক ডা. দিদারুল আলম, অধ্যাপক সৈয়দ মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, অধ্যাপক ডা. ফয়েজ আহমদ খান প্রমুখ।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, মতবিনিময় সভা শেষে আন্দোলনকারীদের এক বিক্ষোভ মিছিল ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ শেষে ফয়স লেক এলাকার একটি ভবনে অবস্থানরত জনসেবা ফাউন্ডেশনের সদস্য সচিব নীনা ইসলামকে প্রায় এক ঘণ্টা অবরূদ্ধ করে রাখে। এসময় বাসভবনের বাইরে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে আন্দোলনকারীরা।

আন্দোলনকারী সমন্বয় পরিষদের সদস্য সচিব আনোয়ারুল ইসলাম বাপ্পী জানান, বিক্ষুব্ধ আন্দোলনকারীর ডা. নীনা ইসলাম বাসভবনে রয়েছেন শুনতে পেয়ে বাসভবন ঘেরাও করে তাকে প্রায় এক ঘন্টা অবরূদ্ধ করে রাখে।

দাবি না মানা পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত থাকবে বলে জানান আন্দোলনকারীদের এ নেতা।