আশ্রয় নেই: মাতারবাড়ী ও ধলঘাটা পানির নিচে

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৩০ জুলাই , ২০১৫ সময় ০৮:৫৬ অপরাহ্ণ

সাগর দ্বীপ মহেশখালী উপজেলার মাতার বাড়ী ও ধলঘাটা বেড়ি বাঁধ ভেঙ্গে পানি ঢুকে পুরো এলাকা এখন পানির নিচে।

সহাস্ধিরাক পরিবার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্টান ও আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছে। এসব পরিবারের সদস্যদের মাঝে দেখা দিয়েছে খাদ্য ও জ্বালানী সংকট। মহেশখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতা মাতার বাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও সাবেক ইউ.পি সদস্য মোহাম্মদ উল্লাহ এবং মাতারবাড়ী ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম জানান সর্বনাশা কয়লা বিদ্যুতের জন্য একোয়ার করা জায়গার পূর্ব পার্শ্বে রাংগাখালী ও টিয়া কাটিসহ বিভিন্ন স্থানের বেড়ি বাঁধ ভেঙ্গে খানখান হয়েগেছে। বিশাল ভাঙ্গন দিয়ে বৃষ্টির পানি ও কোহলিয়া নদীর জোয়ারের পানি ডুকে ফুলজান মুরা, পূর্ব মাইজপাড়া, নয়া পাড়া, সর্দার পাড়া, সাইরার ডেইল ও রাজঘাটসহ বহুগ্রাম পানির নিচে ডুবে গেছে। পানিতে ভিজে নষ্ট হয়ে গেছে ঘর ও দোকানে মজুদ থাকা খাদ্য সামগ্রী। এসব এলাকার লোকজন সাইরার ডেইল বালিকা মাদ্রাসা, দারুসছুন্নাহ সাইরার ডেইল সাইক্লোন সেন্টার, শান্তি বাজার, সর্দার পাড়া, মাইজ পাড়াসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্টান ও সাইক্লোন সেন্টারে আশ্রয় নিচ্ছে। এসব পরিবারের সদস্যদের দেখা দিয়েছে খাদ্য সংকট। অপরদিকে ধলঘাটা পুরো এলাকা পানিতে ডুবে সাগরের সাথে একাকার হয়ে গেছে। সেখানে প্রতিটি মসজিদ পানির নিচে নিমজ্জিত থাকায় নিয়মিত আযানও হচ্ছে না। গত ৩ দিন ধরে সেখানকার শিক্ষা প্রতিষ্টানে ছাত্র-ছাত্রীরা প্রতিষ্টানে যাওয়া আসা বন্ধ করে দিযেছে। উক্ত ইউনিয়নে চেয়ারম্যান আহসান উল্লাহ বাচ্চু উক্ত ইউনিয়নের জন্য জরুরী ভিত্তিতে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের আহ্বান জানিয়েছে।


আরোও সংবাদ