আলোচিত ৮ হত্যা মামলার আসামীদের শাস্তি দাবী

প্রকাশ:| সোমবার, ১৩ জুলাই , ২০১৫ সময় ০৯:৩৭ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশ ছাত্রলীগকে প্রতিষ্ঠিত করার সংগ্রামে নানা সময়ে যাঁরা জীবনদান করেছেন তাদের স্মরণ না করলে বেঈমান হিসেবে পরিগণিত হবো আমরা। বিশেষ করে, জামাত-শিবির বিরোধী কর্মকান্ডে যাঁরা শহীদ হয়েছেন তাঁদের আত্মদান তখনই স্বার্থক হবে যখন জামায়াত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধ হবে। চট্টগ্রামের ৮ তরুণের আত্মদানকে নিছক স্মরণের আবরণে সীমাবদ্ধ না রেখে তাদের পরিবার-পরিজনের সাথে যোগাযোগ-সমন্বয় রাখাও আমাদের নৈতিক দায়িত্ব।
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ-তৃণমূল কর্মীবৃন্দ তৃণমূলের খবর জানতে চায়-রাখতে চায়। মেধাবীদের রাজনীতিতে আনতে চায়, অতীতকে সম্মানের সাথে স্মরণ করতে চায়। লেজুর বৃত্তি কিংবা নেতা তোষণ নয় সত্যিকারার্থে মেধাবী ছাত্রদের ঠিকানা হবে তৃণমূল। অবিলম্বে ৮ হত্যা মামলার আসামীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবির পাশাপাশি জামাত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবিও জানান বক্তারা।
২০০০ সালে চট্টগ্রামে ঘটে যাওয়া নৃশংস আলোচিত ৮ শহীদের স্মরণে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ-এর তৃণমূল কর্মীবৃন্দ, চট্টগ্রামের উদ্যোগে ‘জামাত-শিবিরের শেষ ঘাঁটি নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত আমাদের সংগ্রাম চলবে’ শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।
গতকাল ১৩ জুলাই ’১৫ সোমবার বিকেল ৩টায় মোমিন রোডস্থ বঙ্গবন্ধু ভবনের ৩য় তলায় চট্টলবন্ধু এস.এম জামাল উদ্দিন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক ছাত্রনেতা, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট সীমান্ত তালুকদার। মুখ্য আলোচক ছিলেন একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় সমন্বয়ক লেখক-সাংবাদিক শওতক বাঙালি।
নিখিলেষ সরকার রাজের সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ তৃণমূল কর্মী সংগঠক মাউসুফ উদ্দিন মাসুম, তরুণ মুক্তিযুদ্ধ গবেষক সাব্বির হোসাইন, অসিত বরণ বিশ্বাস, আকর দে পিনাক, বেলাল নূরী প্রমুখ।
অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অভি চৌধুরী, মিঠুন নাথ রনি, মো. পারভেজ, মনিরুল ইসলাম সৌরভ, জোবাইদুল ইসলাম, সঞ্জয় দত্ত, নোবেল দে টিটুল, কামাল উদ্দিন চৌহানী, তঞ্জয়, বেলাল নূরী, দিপু বড়–য়া, বাবলু আচার্য শ্রাবণ, অনিক হাওলাদার, তারেক আজিজ, অনিরুদ্ধ, আকাশ দে, জুয়েল চন্দ্র নাথ, ইব্রাহিম মুন্না, জয় পাল, সালমান হোসাইন, মো. তাজিম, মো. তায়েস, তারেক ভূইয়া প্রমুখ।
আলোচনা সভা শেষে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।